Sharing is caring!

পুরান ঢাকা থেকে সরানো হচ্ছে কেমিক্যাল গোডাউন

চকবাজারের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের দুর্ঘটনা নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা দেশকে। রাজধানীর চকবাজারের একটি ভবনে বুধবার রাতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুনের লেলিহান শিখা কেড়ে নিয়েছে অন্তত ৭০টি তাজা প্রাণ। দগ্ধ হয়েছে আরো অর্ধশত মানুষ। খাবারের হোটেল, বাসাবাড়ির মানুষের পাশাপাশি পুড়ে মরেছে রাস্তার মানুষও। এই ট্রাজেডি কাঁদিয়েছে গোটা দেশের মানুষকে।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিস-কর্মীদের পাশাপাশি সাধারণ মানুষও এগিয়ে এসেছে। তবে ঘিঞ্জি পরিবেশের কারণে বেগ পেতে হয়েছে উদ্ধারকারীদের। আর তাতেই ক্ষতির পরিমাণ বেশি। এই ভয়াবহতায় উদ্বেগ ছিল সবার, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও রাতভর উদ্ধার কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করেছেন, দিয়েছেন প্রয়োজনীয় দিক-নির্দেশনা।

রাজধানীর পুরান ঢাকা যেন মরণফাঁদ। কমবেশি প্রতিটি বাড়িতেই রয়েছে কেমিক্যাল গোডাউন। যা বছরের পর বছর ভাড়া দিয়ে রেখেছেন বাড়ির মালিকরা। এবার এসব কেমিক্যাল গোডাউন অন্যত্র সরিয়ে নিতে কঠোর হচ্ছে সরকার। এসব কেমিক্যাল গোডাউন অতি দ্রুত সরানোর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পরপরই অনতিবিলম্বে এসব কেমিক্যাল গোডাউন নিরাপদ কোনো জায়গায় সরিয়ে নেওয়ার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন।

বৃহস্পতিবার চকবাজারের অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উদ্ধার অভিযান শেষ ঘোষণা করে ডিএসসিসি মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, পুরান ঢাকা থেকে কেমিক্যাল গোডাউন উচ্ছেদ অভিযান অব্যাহত থাকবে। কোনোভাবেই আর এখানে কেমিক্যাল গোডাউন রাখতে দেবো না। তিনি বলেন, পুরান ঢাকায় দাহ্য পদার্থের গোডাউন থাকতে দেওয়া হবে না। এজন্য কঠোর থেকে কঠোরতম পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

এদিকে রাজধানীর পুরান ঢাকার কেমিক্যাল কারখানা সরাতে সাহায্য করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। তিনি বলেন, “কেমিক্যাল কারখানাগুলো সরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে সিটি করপোরেশন কাজ করছে। কেননা, এটি আবাসিক এলাকা। এ ধরণের কারখানা না থাকলে দুর্ঘটনা নাও ঘটতে পারত। এই এলাকাকে এখন পরিকল্পিতভাবে গড়ে তোলার জন্য সিটি করপোরেশনের সঙ্গে সরকার জোর দিয়ে কাজ করবে। আমরা কোন প্রাণহানি চাই না”

এদিকে পুরান ঢাকার চকবাজারের চুড়িহাট্টায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দগ্ধ ও আহতদের দেখতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে গেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় প্রধানমন্ত্রী ঢাকা মেডিকেলে পৌঁছান। তিনি হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন দগ্ধ ও আহতদের খোঁজখবর নিয়েছেন এবং নিহতদের স্বজনদের সাথে কথা বলে তাদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাশাপাশি আহতদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *