Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি \ বিবাহিত দৃষ্টি প্রতিবন্ধী নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগে চাঁপাইনবাবগঞ্জে একজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড, ১ লক্ষ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৩ বছর বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেয়া হয়েছে। রবিবার বেলা সোয়া ১১টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-২ এর বিচারক অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ জিয়াউর রহমান আসামীর উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন। কারাদন্ডপ্রাপ্ত ব্যক্তি হচ্ছে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর এলাকার টিকরামপুর রেহাইচর মহল্লার মো. মোজাহারের ছেলে কামরুল ইসলাম (৪৩)। ধর্ষণের ঘটনায় নারীর চাচাত ভাই এর করা একটি নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে দায়েরকৃত একটি মামলার একমাত্র আসামীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড, ১ লক্ষ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৩ বছর বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেন আদালতের বিচারক। মামলার বিবরণ ও এপিপি এ্যাড. আঞ্জুমান আরা বেগম জানান, ২ বছর পূর্বে বিয়ে হলেও ঘটনার শিকার ওই অন্ধ বিবাহিতা নারী পিতার বাড়ীতে একা বসবাস করছিলো। লম্পট কামরুল ইসলাম দীর্ঘদিন ধরে ওই নারীকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিন্তু তার কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ২০১৫ সালের ৩ আগষ্ট রাতে ঘুমিয়ে থাকা অবস্থায় লোহার জানালা ভেঙ্গে ওই নারীর ঘরে ঢুকে পড়ে কামরুল। পরে ওই নারীকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে কামরুল। এসময় নারীর চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে কামরুল পরনের পোষাক, স্যান্ডেল ফেলে পালিয়ে যায়। এদিকে ওই নারী অন্ধ হলেও ধর্ষককে কন্ঠ¯^রে চিনে ফেলেন। এঘটনায় নারীর চাচাত ভাই দুদিন পর ৫ আগষ্ট সদর থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার এস.আই আতাউর রহমান ওই বছরই ২৮ ডিসেম্বর কামরুল ইসলামকে একমাত্র অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। ৬ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ ও দীর্ঘ শুনানী শেষে আদালত রবিবার দুপুরে এই মামলার রায় ঘোষণা করেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *