Sharing is caring!

প্রবীন সাংবাদিক আনোয়ারুল আলম ফটিকের ইন্তেকাল \ বিভিন্ন মহলের শোক

♦ কবির সরকার, রাজশাহী 

রাজশাহী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও স্থানীয় দৈনিক সোনালী সংবাদ পত্রিকার বার্তা সম্পাদক আনোয়ারুল আলম ফটিক আর নেই (ইন্না…রাজিউন)। ১২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার, রাত ৯টার দিকে নগরীর বালিয়াপুকুরের নিজ বাড়িতে তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। শুক্রবার বাদ জুম্মা বালিয়াপুকুর জামে মসজিদে সাংবাদিক আনোয়ারুল আলম ফটিকের জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরে নগরীর রেলগেটে গোরহাঙ্গা কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়েছে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী এবং ১ ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। এর আগে, গত ২৭ নভেম্বর তিনি ব্রেইন ষ্ট্রোক করেছিলেন। সে দিনই দুপুরে তাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার বাম হাত ও পা প্রায় অকেজো হয়ে পড়েছিল। চিকিৎসকরা তাকে বাসায় নিয়ে ফিজিওথেরাপি চিকিৎসা দেয়ার পরামর্শ দেন। তাই গত ৭ ডিসেম্বর তাকে হাসপাতাল থেকে বাসায় নিয়ে আসা হয়। সেখানে তার থেরাপি চলছিল। এরই মধ্যে সবাইকে ছেড়ে চলে গেলেন রাজশাহীর এই বিশিষ্ট সাংবাদিক। প্রবীণ সাংবাদিক আনোয়ারুল আলম ফটিক এর মৃত্যুতে তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা, গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র এ.এইচ.এম খায়রুজ্জামান লিটন। শোক বিবৃতিতে মেয়র বলেন, দীর্ঘদিন যাবৎ রাজশাহীতে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে সাংবাদিকতা পেশায় যুক্ত ছিলেন আনোয়ারুল আলম ফটিক। তাঁর মৃত্যুতে আমরা একজন প্রবীণ ও অভিজ্ঞ সাংবাদিককে হারালাম, যে ক্ষতি অপূরণীয়। প্রবীণ সাংবাদিক আনোয়ারুল আলম ফটিক এর মৃত্যুতে তাঁর রুহের মাগফেরাত কামনা, গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন ‘চাঁপাই দর্পণ’ পরিবারের পক্ষ থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা থেকে প্রকাশিত ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ’ এর প্রকাশক ও সম্পাদক, ‘দর্পণ টিভি’ (অনলাইন)’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জু। এদিকে, সাংবাদিক আনোয়ারুল আলম ফটিক’র মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছে বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন রাজশাহী শাখার নেতৃবৃন্দ। গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাজশাহী কলেজ রিপোর্টার্স ইউনিটির (আরসিআরইউ) নেতৃবৃন্দ। ফটিকের মৃত্যুতে দৈনিক সোনালী সংবাদ পরিবার গভীরভাবে শোকাহত। দেশের বাইরে অবস্থানরত রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য ও সোনালী সংবাদের নির্বাহী পরিচালক ফজলে হোসেন বাদশা সাংবাদিক ফকিক’র মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। তিনি ফটিকের আত্মার শান্তি কামনা করেছেন। পাশাপাশি সমবেদনা জানিয়েছেন শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি। রাজশাহী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও সোনালী সংবাদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকারও গভীর শোক প্রকাশ করেছেন সাংবাদিক ফটিকের মৃত্যুতে। এছাড়া সোনালী সংবাদের সব সাংবাদিক এবং সকল বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পত্রিকাটির সম্পাদক ও রাজশাহী সাংবাদিক কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান মো. লিয়াকত আলী। ফটিকের মৃত্যুতে গভীর শোক জানিয়েছে রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ। এছাড়া শোক জানিয়েছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ ফটোজার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন রাজশাহী শাখা। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শোক জানানো হয়েছে। উল্লেখ্য, আনোয়ারুল আলম ফটিক ১৯৯৬ সালে ক্রীড়া প্র্রতিবেদক হিসেবে দৈনিক সোনালী সংবাদে যোগ দেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *