Sharing is caring!

20170112_151230মোহাঃ ইমরান আলী, শিবগঞ্জ থেকে \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের কয়েকটি ছাগলের হাট থেকে অস্বাস্থ্যকর ছাগলের মাংস পাচার হচ্ছে, এমন সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর ক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেছে প্রতারক চক্র। এই চক্রের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে মাঠে নেমেছে প্রশাসনের পক্ষ থেকে প্রাণীসম্পদ বিভাগ। “দৈনিক চাঁপাই দর্পণ” পত্রিকায় সংবাদ প্রচারের ফলে কঠিন রোগাক্রান্ত ও অ¯^াস্থ্যকর ছাগলের মাংস পাচারের সাথে জড়িত সংশ্লিষ্ট হাট ইজারাদার ও অসাধু ব্যবসায়ীরা ক্ষুদ্ধ হয়ে বিভিন্নভাবে অশালিন বক্তব্য প্রচার করছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা এই ব্যবসায় বাধা সৃষ্টি হওয়ায় ইজারাদারদের এই ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রীয়া। এদিকে, প্রকাশিত সংবাদের পর নড়েচড়ে বসে উপজেলা প্রশাসন ও প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তর। উপজেলার প্রতিটি ছাগল হাটে এসব অসুস্থ ও মৃত ছাগল যেন বাজারজাত না করতে পারে, সেজন্য উপজেলা প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তরের ভেটেরিনারী সার্জন ডাঃ নিয়াজ কাজমীর রহমানের নেতৃত্বে ৪ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মাঠে কাজ করছে। ফলে অসাধু ব্যবসায়ী চক্র আরও ক্ষুদ্ধ হয়ে পড়েছে। এদিকে গত রোববার প্রকাশিত সংবাদের পর উপজেলা ছাগল হাটগুলো পরিদর্শন করে দেখা গেছে, সাধারণ ছাগল ক্রেতা সুস্থ্য ও সবল ছাগল দেখে কিনছেন। এমনকি তা পরীক্ষা-নিরিক্ষা করে কিনছেন। বৃহস্পতিবার বিকেলে শিবগঞ্জ উপজেলার চামাবাজার হাটের বর্তমান চিত্র তুল ধরতে গিয়ে দেখা যায়, অসাধু চক্রের সদস্যরা কার্যক্রম চালাচ্ছে। তবে ভ্রাম্যমান দল অভিযান চালিয়ে প্রায় ২০টি অসুস্থ জবাই করা ছাগল উদ্ধার করে। এসময় ২ জনকে আটকও করা হয়। এব্যাপারে উপজেলা প্রানীসম্পদ অধিদপ্তর কর্মকর্তা সুব্রত কুমার সরকার জানান, গত রোববার প্রকাশিত সংবাদটি দৃষ্টিগোচর হওয়ার পরপরই বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। উপজেলার প্রতিটি ছাগল হাটে এসব অস্স্থু ছাগল বিক্রয় করতে যেনো না পারে সে জন্য ৪ সদস্যের নিয়ন্ত্রণ প্রতিনিধি দল মাঠে কাজ করছে। এছাড়া তিনি প্রতিবেদক ও “দৈনিক চাঁপাই দর্পণ” কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, আপনাদের জন্য আজ অনেক সাধারণ মানুষ এস20170112_150130ব অসুস্থ ছাগল ক্রেতা ও বিক্রেতারা এমনকি এর সাথে সংশ্লিষ্ট চক্র দূর্বল হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি আমাদের প্রতিনিধি দল মাঠে কাজ করায় জনসাধারণ মানুষ সতর্কতার সাথে ছাগল ক্রয়-বিক্রয় করছে। প্রতিনিধি দলের প্রধান শিবগঞ্জ উপজেলা প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তরের ভেটেরিনারী সার্জন ডাঃ নিয়াজ কাজমীর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শিবগঞ্জ উপজেলার শ্যামপুর চামাবাজারে অভিযান চালিয়ে অসুস্থ ও মৃত প্রায় ২০টি ছাগল জবাইকৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এসময় প্রতারক চক্রের ২ জনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের শিবগঞ্জ থানায় সোপর্দ করা হয়েছে। উল্লেখ্য গত রোববার “দৈনিক চাঁপাই দর্পণ” পত্রিকায় “শিবগঞ্জ থেকে মৃত ছাগলের মাংস যাচ্ছে রাজশাহীতে” শীর্ষক শিরোনামের প্রধান সংবাদটি প্রকাশিত হয়। এরপর উপজেলা সর্বস্তরে তোলপাড় শুরু হয়। ফলে উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রাণীসম্পদ অধিদপ্তর কর্মকর্তাদের টনক নড়ে। উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতা নিয়ে উপজেলা প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা সুব্রত কুমার সরকার উপজেলা প্রতিটি ছাগল হাটে এসব নিয়ন্ত্রণের জন্য ৪ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল গঠন করেন এবং মাঠে কাজ শুরু করেন। বর্তমানে প্রতিনিধিদল কাজ করে চলেছে। এ ধারা অব্যহত থাকলে অস্বাস্থ্যকর ছাগলের মাংস পাচার বন্ধ হবে এবং সাধারণ মানুষ ¯^াস্থ্যকর মাংস খেতে পারবে বলে ধারণা করছেন বিশিষ্ট জনেরা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *