Sharing is caring!

বিএনপির প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার করল যুক্তরাষ্ট্র

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য বিএনপি’র পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের একটি লবিং ফার্মকে ভাড়া করা হয়েছিল। যার কাজ ছিল চুক্তি অনুযায়ী, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনে তদবির চালানো এবং নির্বাচনের সময় দলটির আন্তর্জাতিকভাবে কাজ করা। চুক্তি অনুযায়ী, প্রথম মাসের (আগস্ট ২০১৮) জন্য লবিং ফার্মটিকে ২০ হাজার মার্কিন ডলার পরিশোধ করার কথা ছিল।
সেপ্টেম্বর-ডিসেম্বর ২০১৮এর জন্য ৩৫ হাজার মার্কিন ডলার করে দিয়েছিল দলটি। নির্বাচনে বিএনপির পক্ষে বার্তা তৈরি করে তা যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসসহ প্রশাসনের বিভিন্ন কর্মকর্তাদের কাছে পৌঁছে দিয়েছিল ব্লু স্টার। আর ব্লু স্টারকে এ কাজে সহযোগিতা করেছিল রাস্কি পার্টনার্স নামে ওয়াশিংটনভিত্তিক অন্য একটি কমিউনিকেশন ফার্ম। কিন্তু বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, নিষিদ্ধ জামায়াতে ইসলামকে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচনের খবরে বিএনপির প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার করেছে ট্রাম্প প্রশাসন।
উল্লেখ্য বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশে জঙ্গী অর্থায়নে পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার নাম উঠে এসেছিল। আর পাকিস্তানি গোয়েন্দা সংস্থার সাথে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামের সংশ্লিষ্টার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছিল। আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, জামায়াতে ইসলামির বছরে নিট মুনাফা দেড় হাজার কোটি টাকা যার শতাধিক কোটি টাকা ব্যয় হয় জঙ্গী, সন্ত্রাসী ও দলীয় কর্মকাণ্ডে। বৈশ্বিক সন্ত্রাসবাদ সূচি বা গ্লোবাল টেরোরিজম ইনডেক্সে জঙ্গী সংগঠনের তালিকায় জামায়াতে ইসলামের নাম প্রকাশ পায় যা আন্তর্জাতিক মহলে বেশ আলোচিত হয়। জামায়াতে ইসলামের সাথে বিএনপির সংশ্লিষ্টতায় সমালোচনা করে যুক্তরাষ্ট্র। তারই সুত্র ধরে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াত সংশ্লিষ্টতার কারণে বিএনপির প্রতি সমর্থন প্রত্যাহার করল যুক্তরাষ্ট্র।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *