Sharing is caring!

Port pic 1 শিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে ফরমালিন পরী¶া ছাড়াই বাংলাদেশে প্রবেশ করছে ভারতীয় টমেটো। যা দেশের বিভিন্ন জেলায় যাচ্ছে। অনুসন্ধানে জানা গেছে, গত ৯ জুলাই থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত ৬ দিনে প্রায় ৫০ ট্রাক ভারতীয় টমেটো সোনামসজিদ স্থলবন্দর দিয়ে প্রবেশ করেছে। জানা গেছে, এসব টমেটো যে সব সিএন্ডএফ আমদানি করেছে তার মধ্যে মেসার্স সিলেকটেড এন্টারপ্রাইজ, যার প্রোপ্রাইটর ধনী ও কালু, মেসার্স মানিক এন্টারপ্রাইজ, যার প্রোপ্রাইটর রবিউল ইসলাম, মেসার্স বড় সাহেব এজেন্সী, যার প্রোপ্রাইটর মাসুদ রানা, মেসার্স মুক্তা এন্টারপ্রাইজ, যার প্রোপ্রাইটর মুক্তা মিয়া, মেসার্স রবিন এন্টারপ্রাইজ যার প্রোপ্রাইটর খাইরুল ইসPort pic 2লাম। কিন্তু এ সব আমদানিকারক ও সিএন্ডএফ এজেন্টরা কোন প্রকার ফরমালিন পরী¶া ছাড়াই টমেটো স্থলবন্দর থেকে ছাড় করে দেশের অভ্যান্তরে পাঠাচ্ছেন। সরজমিনে স্থলবন্দর এলাকা পরিদর্শন করে দেখা গেছে, ফরমালিন পরী¶া করার কোন কেন্দ্র নাই। বিএসটিআইয়ের পরিচালনায় ফরমালিন পরী¶া কেন্দ্র থাকার কথা থাকলেও তার কোন হদিস পাওয়া যায়নি। এব্যাপারে সোনামসজিদ স্থল শুল্ক বন্দরের সহকারি কমিশনার ইরাজ ইসতিয়াক জানান, গত ৯ জুলাই থেকে স্থলবন্দর দিয়ে ভারতীয় টমেটো প্রবেশ করছে। অন্যদিকে সহকারি রাজ¯^ কর্মকর্তা (মাইকওয়ান) আকরামুল হক জানান, এই স্থলবন্দর দিয়ে ফরমালিন পরী¶া করেই টমেটোর ট্রাক প্রবেশ করছে। আমরা ফরমালিন পরী¶া ছাড়া কোন ট্রাকের ছাড় দিচ্ছিনা। সিএন্ডএফ এজেন্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইসমাইল হোসেনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমার জানা মতে আপেল, বেদানা, কমলাসহ যে কোন ফলের ফরমালিন পরী¶া করা লাগে। কিন্তু টমেটোর ফরমালিন পরী¶া করা লাগে এটা জানা নাই। কিন্তু প্রকৃত প¶ে ফরমালিন পরী¶া ছাড়াই দেশের অভ্যান্তরে যাচ্ছে এইসব ভারতীয় টমেটো। যা দেশের ভাবমুর্তি নষ্ট করছে অন্যদিকে মানব দেহে বিভিন্ন ধরনের ভয়ানক রোগ তৈরী হচ্ছে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *