Sharing is caring!

ব্যারিস্টার রাজ্জাককে নিয়ে ভয়ে আছে

জামায়াত, বললেন নেতারা

নিউজ ডেস্ক: মুক্তিযুদ্ধে বিরোধিতার জন্য ক্ষমা চাওয়া এবং দলের সংস্কার ইস্যুতে কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুর রাজ্জাকের পদত্যাগের পর বেশ চাপে পড়েছে জামায়াতে ইসলামী। এমন প্রেক্ষাপটে উদ্ভূত পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে দলটির কেন্দ্রীয় পর্যায় থেকে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের নতুন সংগঠন গড়ার আশ্বাস দেয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে পাঁচ সদস্যের কমিটি কার্যক্রমও শুরু করেছে।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে জামায়াতে ইসলামীকে বিলুপ্ত করে দলের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে নতুন নামে দল গঠনের পরামর্শ উপেক্ষা করলেও একই ইস্যুতে গত ১৫ ফেব্রুয়ারি দলের কেন্দ্রীয় সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাকের পদত্যাগের পর তা কঠিন আকার ধারণ করেছে। এমনকি ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পথ অনুসরণ করে জামায়াতকে স্বাধীনতাবিরোধী দল বলে আখ্যায়িত করে পদত্যাগ করছেন অনেক নেতাই। এর প্রেক্ষিতে দলত্যাগী নেতাদের নিয়ে ব্যারিস্টার রাজ্জাক নতুন দল গঠন করতে পারেন বলে শঙ্কা চেপে বসেছে সংস্কার বিরোধী জামায়াত নেতাদের মাথায়। রাজ্জাকের সংস্কার মতামত উপেক্ষা করলেও তারা আবার সেই পথেই ফিরতে চাইছে বলে জানা গেছে। রাজ্জাকের আশঙ্কায় ‘দৃষ্টি আকর্ষণী’ শিরোনামে দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের কাছে একটি জরুরি নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। তাতে মাঠ পর্যায়ের নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের নতুন সংগঠন গড়ার আশ্বাস দেওয়া হয়। একই সঙ্গে আব্দুর রাজ্জাকের পদত্যাগ এবং সাবেক কেন্দ্রীয় মজলিশে শূরার সাবেক সদস্য মুজিবুর রহমান মঞ্জুকে দলীয় সদস্য পদ বাতিল করার বিষয়েও ব্যাখ্যা করা হয়।

জামায়াতের মাঠ পর্যায়ের একজন দায়িত্বশীল নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগের পর চাপের মুখে আবার নতুন সংগঠন করার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। এমন প্রেক্ষাপটে ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পথ অনুসরণ করে অনেক জামায়াত নেতাই পদত্যাগ করেছেন। জামায়াতের কেন্দ্রীয় নেতারা এই শঙ্কায় আছেন যে, রাজ্জাকের নেতৃত্বে জামায়াতের আদলে যদি নতুন কোন জোটের সৃষ্টি হয় তবে জামায়াত পুরোপুরিভাবে বাংলাদেশের রাজনীতি থেকে ছিটকে পড়বে। ফলে বিষয়টি ভাবনার।

এ বিষয়ে জামায়াতের নায়েবে আমির মিয়া গোলাম পরওয়ার বলেন, ব্যারিস্টার আব্দুর রাজ্জাক দলের যে সংস্কারের বা নাম পরিবর্তনের কথা বলছেন তা আমরা বিবেচনা করার আগেই তিনি পদত্যাগ করলেন। ফলে এটি ভয়ের ব্যাপার যে, ব্যারিস্টার রাজ্জাকের পদত্যাগ নতুন দল গঠনের কৌশল কিনা! যা পূর্ব-পরিকল্পিতও হতে পারে। এছাড়া দেশের বিভিন্ন প্রান্তের দায়িত্বশীল নেতারা যখন জামায়াতকে স্বাধীনতাবিরোধী দল হিসেবে আখ্যায়িত করে পদত্যাগ করছেন তখন এই সত্য উন্মোচন হচ্ছে যে আব্দুর রাজ্জাক পরিকল্পনার মূল হোতা।

জামায়াতের বর্তমান প্রেক্ষাপটে এই গুঞ্জন মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে যে, রাজ্জাকের নেতৃত্বে নতুন দল গড়ে উঠলে জামায়াতের জন্য সেটি হবে ‘গোদের উপর বিষফোড়া’।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *