Sharing is caring!

ভোলাহাট সংবাদদাতা \ সারাদেশে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের তফশিল ঘোষণার পূর্বেই দলীয় মনোনয়ন পেতে সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা নেতা ও ভোটারদের মাঝে দৌড় ঝাঁপ করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। সম্ভাব্য ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মনোনয়ন পেতে নেতা ও ভোটারদের দৃষ্টি কাড়তে নিজ নিজ এলাকার পোষ্টার ও বিলবোর্ড দিয়ে বেশ প্রচারনায় মেতে উঠেছেন। শুধূ পোষ্টার আর বিলবোর্ড দিয়ে বসে নাই, ঘাম ঝরাতে শুরু করেছেন ঘাটে, মাঠে, হাটে বাজারে, রাস্তায়, চায়ের স্টলে নিজেকে যোগ্যপ্রার্থী হিসেবে তুলে ধরতে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি চেয়ারম্যান প্রার্থী প্রত্যাশিরা। এ দিকে শোনা যাচ্ছে কেউ কেউ পোষ্টার বিলবোর্ড দিয়ে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী প্রত্যাশি দেখিয়ে অর্থ হাতিয়ে নিয়ে নির্বাচনি মাঠ ছাড়বেন। তবে দলীয়ভাবে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীরা প্রতীক পেলেও থেমে নেই ইউপি সদস্যরা। তারাও নির্বাচনি মাঠ গরম করতে দলীয় পরিচয়ে এখন থেকেই জায়গা জায়গায় চায়ের আসর বসাচ্ছে ভোটারদের মন জয় করতে। সম্ভাব্য প্রার্থীরা নিজেদের উন্নয়নের কথা বলে ভোটারদের মন কাড়ায় ব্যস্ত। এদিকে, প্রার্থীরা জেঁচে পড়ে ভোটারদের যে কোন উপকারে ছুটে যাওয়াতেও ব্যস্ত। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ভোলাহাট উপজেলায় মোট ৪টি ইউনিয়ন রয়েছে। ৪টি ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ, বিএনপি ও জামায়াতের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থীদের নাম শোনা যাচ্ছে। ভোলাহাট ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পেতে মাঠে নেমেছেন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক, উপজেলা সহ-সভাপতি আইয়ুব আলী মন্ডল, উপজেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আহমেদ বিশ্বাস, ভোলাহাট সদর ইউপি সভাপতি আনোয়ার হোসেন রজব, উপজেলা যুব মহিলা সাধারণ সম্পাদক শাহজাদি বিশ্বাস। বিএনপি থেকে উপজেলা সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহাতাব উদ্দিন, বিএনপি নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান ইয়াজদানী জর্জ, উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি ইব্রাহিম (সেলিম রেজা )ও বিএনপি নেতা সেলিম রেজা বিশ্বাস সুজন। জামায়াত থেকে জামায়াত নেতা আলী হয়াদার এবং ¯^তন্ত্র ডাঃ আব্দুল মতিন। গোহালবাড়ী ইউনিয়ন থেকে আওয়ামীলীগের উপজেলা সিনিয়র সহ-সভাপতি ইয়াসিন আলী শাহ, আলীগ নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন। বিএনপি থেকে উপজেলা সহ সভাপতি আব্দুল কাদের, উপজেলা যুবদল সাধারণ সম্পাদক মুন্সুর আলী, বিএনপি নেতা একরামুল হক। জামায়াত থেকে বর্তমানে কারাগারে উপজেলা জামায়াত সেক্রেটারী তৌহিদুর রহমান। দলদলী ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ থেকে উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক রাব্বুল হোসেন, দলদলী আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক আরজেদ আলী ভুটু, আ’লীগ নেতা আনিসুর রহমান, আব্দুল গাফ্ফার মুকুল ও পুতুল। বিএনপি থেকে বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা মাজহারুল ইসলাম পুতুল, উপজেলা সহ-সভাপতি আব্দুস সোভান মাষ্টার, সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক চুটু, দলদলী ইউপি সাধারন সম্পাদক ইবনে কাজেম, ইউনিয়ন সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তাকিম আর্মি, উপজেলা সদস্য আব্দুল বারী। জামায়াত থেকে বর্তমানে কারাগারে উপজেলা জামায়াত আমির গোলাম কবির (গোলাপ)। জামাবাড়ীয়া ইউনিয়ন থেকে আওয়ামীলীগের জামাবাড়ীয়া ইউপি সভাপতি পিয়ারুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন আইরণ, উপজেলা যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রবিউল আওয়াল ও আলীগ নেতা আমিনুল ইসলাম। বিএনপি থেকে উপজেলা আহবায়ক কমিটির সদস্য ও জেলা জাসাস সাধারণ সম্পাদ কামরুজ্জামান বাবুল, বিএনপি নেতা ও বর্তমান চেয়ারম্যান জগলুল হক, উপজেলা সাংগঠনিক সম্পাদক কাউসারুল ইসলাম রন্জু, বিএনপি নেতা সাদিকুল ইসলাম ও মানিক। জামায়াত নেতা আব্দুল বাশির। জনস্বার্থে সৎ, যোগ্য ও ত্যাগী ব্যক্তিরা রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে মনোনয়ন পাবেন বলে এলাকাবাসির প্রত্যাশা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *