Sharing is caring!

রফতানি বহুমুখীকরণে চিন্তাভাবনা

করছে সরকার

দেশকে অর্থনৈতিকভাবে আরও সমৃদ্ধ এবং শক্তিশালী অবস্থানে নিয়ে যেতে রফতানি আয় বাড়ানোর কোনও বিকল্প নেই। সম্প্রতি রফতানি বাণিজ্য বিকাশের লক্ষ্যে নানামুখী কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণের প্রতি জোর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি রফতানির নতুন বাজার খুঁজতে তাগিদ দিয়েছেন। রফতানির ক্ষেত্রে পণ্যের বহুমুখীকরণের বিষয়টি যেমন জরুরি তেমনি নতুন বাজারের সন্ধানও সমানভাবে জরুরি।

টানা তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় এসেই বাংলাদেশের আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে স্বনির্ভরতার পাশাপাশি রফতানি আয় বাড়ানোর দিকে বিশেষ মনোযোগ দিয়েছে বর্তমান সরকার। সেই লক্ষ্যে রফতানি খাতকে বহুমুখীকরণের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে বর্তমান সরকার। সম্প্রতি ঢাকায় অনুষ্ঠিত প্রবাসী প্রকৌশলীদের এক সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘কেবল একটি পণ্যের ওপর নির্ভর করে দেশ এগিয়ে যেতে পারে না। এ কারণে রফতানি বহুমুখীকরণে চিন্তাভাবনা করছে সরকার।’

ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার মানেই দেশের সমৃদ্ধি আর রফতানি বৃদ্ধি মানে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের সম্ভাবনার দুয়ার খুলে যাওয়া। সময়ের সাথে সাথে ব্যবসা বাণিজ্যের ধরণও পাল্টে যাচ্ছে অনেক। রফতানি পণ্যের তালিকায় যে সব নতুন পণ্য যুক্ত হচ্ছে সে সব পণ্যের অবদান কীভাবে রফতানি বাণিজ্যে ব্যাপক করে তোলা যায় তা নিয়ে কাজ করছে বর্তমান সরকার।

গতকাল রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁও’য়ে এনআরবি প্রকৌশলীদের সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ‘উই আর ফর বাংলাদেশ’ স্লোগানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নানান পেশায় কাজ করছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। তাদের মধ্যে প্রকৌশল পেশায় জড়িতদের মেধা ও প্রজ্ঞা দেশের উন্নয়নে কাজে লাগানোর উদ্দেশ্যে ঢাকায় আয়োজিত হলো প্রবাসী প্রকৌশলীদের প্রথম সম্মেলন।

সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী দেশে পরিকল্পিত বিনিয়োগ করতে প্রবাসী প্রকৌশলীদের আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি প্রকৌশলীদের বিদেশে অর্জিত জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা নিয়ে দেশের উন্নয়নে বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী।

শহরের পাশাপাশি গ্রামের উন্নয়নে সরকার মনোযোগী উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘রপ্তানি পণ্যের বহুমুখীকরণের উদ্যোগ নেয়া এখন সময়ের দাবি।’

বিশ্বের ৩০টি দেশে কর্মরত প্রায় ৩’শ প্রকৌশলীদের নিয়ে দুইদিন ব্যাপী এই সম্মেলনের আয়োজন করেছে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ, অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) এবং ব্রিজ টু বাংলাদেশ নামের একটি প্রবাসী সংগঠন।

এই সম্মেলন থেকে দেশের উন্নয়নে করণীয় ঠিক করতে, কার্যকর সুপারিশ সরকারের পক্ষ থেকে নেয়া হবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *