Sharing is caring!

রাজশাহী সংবাদদাতা \ রাজশাহীতে মহানগরীর ডিঙ্গাডোবায় ¯^ামীর নির্মম নির্যাতনের শিকার গৃহবধূ রিফাহ তাসফিয়া সালমার শ্বশুর, শাশুড়ি ও দুই ভাসুরের জামিন বাতিল করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার বিকেলে রাজশাহীর অতিরিক্ত চীফ মেট্রোপলিটন আদালতের বিচারক জুলফিকার উল্লাহ এ আদেশ দেন। এরা হলেন, সালমার শ্বশুর ফজলুল হক (৫৬), শাশুড়ি জাহানারা বেগম সুজি (৫০) এবং ভাসুর ফয়সাল (৩০) ও সজীব (২৮)। তারা মামলা দায়েরের পর আদালত থেকে জামিন নিয়েছিলেন। একই ঘটনায় মামলার প্রধান আসামি তাসফিয়ার ¯^ামী শামিউল হক সোয়াদ ওরফে সোহাগ (২৬) মামলা দায়েরের পর থেকেই কারাগারে আছেন। উল্লেখ্য, নগরীর ভাটাপাড়া এলাকার আবদুস সালামের মেয়ে রিফাহ তাসফিয়া সালমা (২২) দুই বছর আগে সোহাগকে ভালোবেসে বিয়ে করেন। বিয়ের পর তাদের একটি মেয়ে সন্তানও হয়। গত ১১ জুলাই ৫০ হাজার টাকা যৌতুকের দাবিতে লাঠি, লোহার রড ও পাইপ দিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে তাসফিয়াকে গুরুতর আহত করে তার ¯^ামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এতে তাসফিয়ার দুই হাত ও এক পা ভেঙে যায়। ফেটে যায় বুক ও পাঁজরের দুটি হাড়। আর হাসপাতালে নেয়া হলে মাথায় সেলায় লাগে ১৬টি। এ ঘটনায় তাসফিয়ার মা বাদী হয়ে পাঁচজনকে আসামি করে রাজপাড়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের পর সোহাগকে গ্রেফতার করা হয়। তবে অন্য আসামিরা আদালত থেকে জামিনে ছিলেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *