Sharing is caring!

প্রেস বিজ্ঞপ্তি \ বসতবাড়ির জমিজমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে রাজশাহীতে পুলিশ কর্মকর্তা ছোট ভাই তছলেম উদ্দিনের বিরুদ্ধে বড় ভাই ও তার পরিবারকে হুমকি-ধামকি এবং মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে জমির দাবি ছেড়ে দেওয়া না হলে ক্রসফায়ারেরও হুমকি দিয়েছে ওই পুলিশ কর্মকর্তা বলেও অভিযোগ করেছেন পবা উপজেলার নওহাটা বাঘাটার মৃত মুসলেম উদ্দিনের ছেলে মতিউর রহমান। রোববার দুপুরে রাজশাহী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন ভুক্তভোগী বড় ভাই কৃষিজীবী মতিউর রহমান। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমার ছোট ভাই তছলেম উদ্দিন কিশোরগঞ্জ জেলার বাজেদপুর শহরবাড়ি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হিসেবে কর্মরত। ২০১৭ সালে আমার নিজস্ব ১ দশমিক ৩৬ শতাংশ বসতবাড়ির জমি জোরপূর্বক দখলে নিয়ে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করে তছলেম। এসময় বাধা দিতে গেলে আমি ও আমার পরিবারের সদস্যদের মারধর এবং ৬জনের বিরুদ্ধে হয়রানিমূলক মিথ্যা মামলার দায়ের করা হয়। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে উল্টো মামলা দায়ের করা হলে সে আরো বেশি ক্ষিপ্ত হয়। ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশ দিয়ে নানাভাবে হয়রানিও শুরু করে। সর্বশেষ গত ১০ মার্চ আমার ছেলে আতাউর রহমাকে মিথ্যা মামলায় গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠায়। ক্ষমতার অপব্যবহার করে একইভাবে পরিবারের অন্য সদস্যদের হয়রানি করার হুমকি-ধামকি দেওয়া হচ্ছে। এমনকি জমির দাবি ছেড়ে দেওয়া না হলে ক্রসফায়ারে মেরে ফেলারও হুমকি দিচ্ছে পুলিশ কর্মকর্তা তছলেম উদ্দিন। এসব হুমকি-ধামকিতে চরম নিরাপত্তাহীনতার মধ্যে পরিবার নিয়ে দিন কাটাচ্ছি। সংবাদ সম্মেলন থেকে পুলিশ কর্মকতা তছলেম উদ্দিনের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশ মহাপরির্দশকসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ দাবি করেন মতিউর রহমান। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করেন তিনি। এ ব্যাপারে বক্তব্য জানতে অভিযুক্ত তছলেম উদ্দিনকে কয়েকবার ফোন (০১৭১৭-৫৪৮৯৫৫) করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *