Sharing is caring!

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার প্রায় ৩ হাজারেও বেশি জামে মসজিদে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ বিরোধী বক্তব্য পাঠ করেছেন ইমামগণ। শুক্রবার জুম্মার আযানের পরপর একযোগে প্রতিটা মসজিদে শুরু হয় খুৎবা পর্যালোচনা। খুৎবার শুরুতেই দেশে চলমান সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বিরোধীতার বক্তব্য রাখেন। বক্তব্যে ইমামগণ বলেন, ইসলাম কখনো সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদকে সমর্থন করে না। যারা এইসব সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ কর্মকান্ড ঘটায় তারা কখনো মুসলমান হতে পারে না। কিছু অল্প শি¶িত ইমামদের বক্তব্য শুনে তাদের দেয়া বক্তব্য সুযোগে কাজে লাগিয়ে মসলমানদের বিভ্রান্তে ফেলছে। তারা কোরআনের ইতিহাস না খুঁজে অল্প জ্ঞান নিয়ে বিভ্রান্তমূলক বক্তব্য দিয়ে ইসলামের অপব্যবহার করছে। ইমামগণ আরো বলেন, ইসলামে “আল জিহাদ” বলা হয়েছে ঠিক। কিন্ত “আল জিহাদ” মানে এই নয় যে, নিরীহ মানুষকে গুম, খুন আর হত্যার নিজের ¯^ার্থ হাসিল করা। “আল জিহাদ” মানে যারা ইসলামকে প্রতিষ্ঠিত না করে, ইসলামের পরিপন্থি মসলমানদের উপর নির্যাতন, নিপিরণ ও ইসলামকে গলা টিপে হত্যার করার চেষ্টা করে তাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা। আর দেশে চলমান সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদ কর্মকান্ড এটি “আল জিহাদ” বলে না। এটি হলো “আল ইরহাব”। যা সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদে আশক্ত হয়ে নিরীহ মানুষকে হত্যা করা। ইমামগণ বলেন সরকার যদি খুৎবা নিজে নিয়ন্ত্রণ করেন তাহলে কোরআনের কোন কিছুই আলোচনা করা যাবে না। কেননা, দেশে চলমান সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বা দেশের ¶তিসাধীত পরিস্থিত সবাই এক সাথে নিয়ে মোকাবেলা করতে হবে। সরকারের প্রতি আহŸান ও দাবি জানিয়ে ইমামগণ বলেন, খুৎবা নিজ হাতে নিয়ন্ত্রণে না নিয়ে দেশের সব ইমামদের এক করুন এবং দেশে চলমান সন্ত্রাসী কর্মকান্ডসহ যখন যে পরিস্থিতি হবে, তখন সেই পরিস্থিতি এক সাথে হয়ে নিজ নিজ দায়িত্বে মোকাবেলা করতে হবে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *