Sharing is caring!

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ শিবগঞ্জের বির্তকিত সেই শিক্ষা কর্মকর্তা ইউসুফ আলী ভূঁঞা আবারোও খবরদারী শুরু করেছেন।বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে, তিনি ঠিকমত অফিস না করলেও অজ্ঞাত স্থান থেকে অফিসের কার্যক্রম ঠিক চালিয়ে যাচ্ছেন। রবিবার রাত ৮টার দিকে তার এক কর্মী বাহিনী উপজেলা প্রশাসন চত্বরে তার অপকর্মের জন্য শাস্তি ও বদলীর দাবীতে লাগানো শতাধিক পোষ্টার তুলে ফেলেছে। শিবগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের একটি সূত্র জানায়, শিবগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ইউসুফ আলী ভ‚ইয়া ১৭ আগষ্ট বুধবার রাতে এক নারীর সাথে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে পুলিশের কাছে বৃহস্পতিবার সকালে সোপর্দের পর বৃহস্পতিবার রাত দেড় টায় মুচলেকা দিয়ে শর্তসাপেক্ষে বিয়ে রেজিস্ট্রি সম্পন্নের পর ইউসুফ আলী ভূঁঞা ও ঐ নারী ছাড়া পায়। এরপর থেকে গত ২৭ আগষ্ট পর্যন্ত তিনি কর্মস্থলে উপস্থিত না থাকলেও রবিবার এবং সোমবার আধাঘন্টা করে অফিস করেন। অবশ্য সুত্রটি আরও জানায় তিনি গত ২১ আগষ্ট থেকে কাগজকলমে ৩ দিন ছুটি কাটাবার পর কর্মস্থলে যোগদানের বিষয়ে উর্দ্ধতন কর্তপক্ষকে না জানিয়েই রবিবার থেকে আংশিকভাবে অফিস করছেন। আর অফিসে না এসেও গোপন স্থান থেকে তার কার্যক্রম ঠিকই পরিচালনা করছেন। এ ব্যাপারে তার মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তার ফোনটি বন্ধ পাওয়া গেছে। এদিকে রবিবার রাত ৮টার দিকে যুবক শ্রেনীর ৪/৫ জনের একটি দল উপজেলা প্রশাসন এলাকার বিভিন্ন দেয়ালে লাগানো বিতর্কিত সে শিক্ষা কর্মকর্তার শাস্তির দাবী সম্বলিত পোষ্টর উঠেয়ে ফেলে। শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা সৈয়দ ইরতিজা আহসান এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য না করে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে যোগাযোগের অনুরোধ করেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *