Sharing is caring!

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে অসহায় একটি পরিবারকে নানান ভাবে গ্রামবাসীর কিছু অসাধু ব্যক্তি হয়রানি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘঠেছে উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের ভবানীপুর সিংনগর গ্রামে। এই গ্রামে দরিদ্র পরিবার নিয়ে বসবাস করেন হাসিমুদ্দিনের ছেলে আজম আলী(৫০)। পরিবারে ৫ মেয়ে ও ৩ ছেলে সহ মোট ১০জন সদস্য। প্রভাবশালী ও বংশবিস্তার না থাকায় গ্রামের কিছু মানুষ তাকে নানা হয়রানি করছে বলে অভিযোগ আজম আলীর। একপর্যায়ে আজম আলী বাধ্য হয়ে আইনের স্বরণাপন্ন হন। গত ২৭ জানুয়ারি শিবগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন তিনি। অভিযোগটির তদন্তকারী কর্মকর্তা এএসআই রিপন। আজম আলীর মৌখিক ও লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, তার গ্রামের হবু ঘোষ ও তার দুই ছেলে রুবেল এবং আব্দুল হাকিম, সানোয়ারা বেগম ভুক্তভোগীর পরিবারের বিরুদ্ধে নানান ধরণের ষড়যন্ত্র করে আসছে। কিছুদিন আগে হবু ঘোষের পোষা কুকুর আজম আলীর একটি ছাগলকে কাঁমড়ে মেরে ফেলে। আজম আলী হবু ঘোষকে ছাগলটি মারা যাবার কথা বলতে গেলে তারা সকলে আজম আলীকে মারার জন্য দেশীয় অস্ত্র-স্বস্ত্র নিয়ে প্রস্তুত হন। আজম আলী জীবন রক্ষার্থে পালিয়ে বাঁচে। এছাড়াও ভুক্তভোগীর আম গাছের আম জোর পূর্বক পেড়ে নেয় তারা। এমনকি ফসলি জমির ফসল নষ্ট করে দেয় তারা। গ্রামের লোকেদের কাছে বিচার চাইলে হয়না কোন বিচার। তাই বাধ্য হয়ে আইনের আশ্রয় নিয়েছি বলে জানান অসহায় ভুক্তভোগী আজম আলী। এব্যাপারে তদন্তকারী কর্মকর্তা এএসআই রিপন জানান, আমি অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। জেলা পরিষদের সদস্য সাহিদা আক্তার রেখা ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি বিষয়টি নিরসনের জন্য উভয়পক্ষকে নিয়ে বসে একটা সমাধান করে দিবে বলে দায়িত্ব নেয়। তবে তারা যদি সমাধান না করে দেয় তাহলে আমি আইনি প্রক্রিয়ায় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *