Sharing is caring!

shibganj-pic-01শিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শি¶া অফিসার ইউসুফ আলী ভূঁইঞাকে রহিমা নামে এক মহিলার সাথে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসি। বুধবার রাতে শিবগঞ্জ পৌর এলাকার কোট বাজারে তাঁর ভাড়া বাসায় এঘটনা ঘটে। তবে আটক শিক্ষা কর্মকর্তার দাবী আটককৃত মহিলা তার দ্বিতীয় স্ত্রী। আপত্তিকর অবস্থায় আটককৃত মহিলা উপজেলার মনাকষা ইউনিয়নের হাউস নগর গ্রামের নজরুল ইসলাম মনুর মেয়ে রহিমা বেগম (৩৮) মনাকষার হাউসনগর কিন্ডার গার্টেন নামক একটি কেজি স্কুলের পরিচালক। এলাকাবাসি জানায়, প্রাথমিক শি¶া অফিসার ইউসুফ আলী ভূঁঞা ও রহিমা বেগমের সাথে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে উঠে বেশ কিছুদিন আগে। এরপর থেকেই রহিমা ইউসুফ আলীর বাড়ি যাতায়াত করতে থাকে। এতে করে তাদের সম্পর্ক গভীরতায় পৌছে যায়। বুধবার দিবাগত রাতে প্রাথমিক শি¶া অফিসার ইউসুফ আলীর বাসা এলাকায় রহিমার গতীবিধি ল¶্য করে এলাকাবাসি অবৈধ কাজে লিপ্ত থাকা অবস্থায় প্রাথমিক শি¶া অফিসার ইউসুফ আলী ভূঁঞা ও রহিমা বেগমকে আটক করে। পরে প্রাথমিক শি¶া অফিসার ইউসুফ আলী বাড়ির তৃতীয় তলা থেকে জানালা দিয়ে পালানোর চেষ্টা করলে তাকে আটক করে থানায় খবর দিলে শিবগঞ্জ পুলিশ তাকে উদ্ধার করে থানা নিয়ে আসে। তবে, প্রাথমিক শি¶া অফিসার ইউসুফ আলী ভূঁইঞা ও রহিমা বেগম দাবি করে বলেন, আমরা চাঁপাইনবাবগঞ্জ কোর্টে গিয়ে এফিডেভিট করে গত ফেব্রæয়ারিতে বিয়ে করেছি। অভিযুক্ত ২ জনেরই পূর্বের ¯^ামী সন্তান ও স্ত্রী রয়েছে। এদিকে শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রমজান আলী জানান, বুধবার রাতে শিবগঞ্জ পৌর এলাকার কোট বাজারে তাঁর ভাড়া বাসায় প্রাথমিক শি¶া অফিসার ইউসুফ আলী ভূঁইঞাকে স্থানীরা আটক করে আমাদের খবর দেয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে শি¶া অফিসারকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি। এঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের জন্য তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে ওসি রমজান আলী জানান। এদিকে এঘটনায় জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল কাদের জানান, অভিযুক্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *