Sharing is caring!

Holl mor 30-01-16শিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার আওয়ালীগ নেতা ও দুর্লভপুর ইউপির চেয়ারম্যান আবু আহমদ নজমুল কবির মুক্তার নেতৃত্বে তার লোকজন দিয়ে মিছিল সহকারে এসে বঙ্গবন্ধু-প্রধানমন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর ছেলে জয় এবং স্থানীয় এমপির ছবি পুড়িয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এলাকাবাসী ও প্রত্যে¶দর্শীরা জানান, শনিবার বিকেলে দুর্লভপুর ইউপি ভবনে চরাঞ্চলের মানুষের যাতায়াতের সুবিধার জন্য বাঁধ রোডের উপর দিয়ে রাস্তাটির কিছু অংশ পাকা করণ উপলক্ষে উদ্বোধন ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ও রাস্তার কাজের উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল শিবগঞ্জ আসনের এমপি গোলাম রাব্বানীর। এই কথা শুনার পর শিবগঞ্জ উপজেলা আ.লীগের সাবেক যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক ও দুর্লভপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবু আহমদ নজমুল কবির মুক্তা মিটিংয়ের আগের দিন রাত ১০ টার দিকে তার নিজ¯^ কিছু লোকজন এমপির বিরুদ্ধে একটি মিছিল দাদনচক হলমোড় নামক স্থান থেকে বের হয়ে ইউপি ভবনের দিকে যেতে থাকে এবং এমপির বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধরণের অকথ্য ভাষায় শ্লোগান দিতে থাকে। এসময় এই নেতার নির্দেশে দাদনচক হলমোড়ে আমগাছের উপরে একটি ব্যানার ছিল। সেটিকে নিচে নামিয়ে আনতে বলে এবং সবাইকে ঐ ব্যানারে লাথি দিতে বলে। এই কথা শোনার পর পরেই তার লোকজন ঐ ব্যানারটিকে নামিয়ে লাথি দিতে দিতে ব্যানারটি ভেঙ্গে গেলে তিনি আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দিতে বলে বাড়ি চলে যান। ঐ ব্যানারটিতে ছিল হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু, তার সুযোগ্যকন্যা জননেত্রী ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয় এবং শিবগঞ্জের মাটি ও মানুষের নেতা ও এমপি গোলাম রাব্বানীর ছবি। তবে, এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান মুক্তার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এসব অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, এমপির বিরুদ্ধে স্থানীয় কিছু লোক বিক্ষোভ মিছিল করেছে। কিন্তু ছবি পাড়ানো বা ছবিতে লাথি মারার মত কোন ঘটনা ঘটেনি। বিষয়গুলো বানোয়াট।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *