Sharing is caring!

শিবগঞ্জ প্রতিনিধি: চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে এক কিশোরী আত্মহত্যা নিয়ে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করে কিশোরীর বাবা খাইরুল ইসলাম ও অভিযুক্ত কিশোরের বাবা কামাল উদ্দীন। জানা গেছে, পূর্ব শত্রæতার জের ধরে মিথ্যা মামলায় ১৪ বছরের এক কিশোর, তার ভাই ও পিতাকে হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। হয়রানীর শিকার কিশোরের পরিবারটি উপজেলার মনোহরপুর গ্রামের। হয়রানীর শিকার কামাল উদ্দিন ও তার দুই ছেলে সোহেল(১৪) ও সুমন সহ আরও ১০/১২জন। এই হয়রানীর শিকারের কারণে চরম বিপদে মধ্যে পড়েছে পরিবারটি। কিশোর সোহেলে বাবা কামাল উদ্দিনের ¯^া¶রিত এক অভিযোগে জানা গেছে, গত ১৬ জুন মনোহরপুর গ্রামের খাইরুল ইসলাম পারিবারিক কলহের জের ধরে তার মেয়ে শীমফুলকে মারধর করলে সে অভিমানে পরের দিন ১৭ জুন শনিবার দুপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে। ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে খাইরুল ও তার পরিবার গ্রামের মসজিদের মাইকে খবর দেয় তার মেয়ে বিদ্যুৎ শর্ট-সার্কিটে মারা গেছে এবং রাতের আঁধারে দাফন করার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ ঘটনাটি জানতে পেরে জানাজা প্রস্তুতকালে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে এবং ময়না তদন্তের জন্য থানায় নিয়ে আসলে খাইরুল ইসলাম নিজের বাঁচার জন্য মেয়ে শীমফুলের সাথে সোহেলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল এ মর্মে থানায় অভিযোগ করে। অভিযোগে বলা হয়, মেয়ে শীমফুল ও সোহেলের সম্পর্কের এক পর্যায় শীমফুল অন্তঃ¯^ত্ত¡া হয়। পরে সোহেলকে বিয়ের করার জন্য চাপ দিলে সোহেল ও তার পরিবার শীমফুলকে অপমান করে ফিরিয়ে দিলে অভিমানে শীমফুল অত্মহত্যা করে। অভিযোগটি জানতে চাইলে সোহেল বলেন, শীমফুলের সাথে তার কোন প্রেমের সম্পর্ক ছিল না এবং তার সাথে আমার দৈহিক সম্পর্ক প্রশ্নই উঠেনা। বিয়ের চাপ প্রয়োগের অভিযোগ অ¯^ীকার করে বলেন, খাইরুল ও তার পরিবারের কেউ বিয়ের কোন প্রস্তাব নিয়ে আসেনি আমাদের বাড়িতে। এদিকে ঘটনাস্থলে সরেজমিনে এলাকায় গিয়ে, সাবেক ইউপি সদস্য তোজাম্মেল হক, রুহুল আমিন, আকবর আলিসহ অনেকে জনান, মসজিদের মাইকে তারা শুনেছে যে শীমফুলের মৃত্যু বৈদ্যুতিক শর্ট-সার্কিটে হয়েছে এবং রাত ১০ টায় জানাযা হবে। অন্যদিকে মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জেম মোশারফ হোসেন ও মোস্তফা জানান, তারা খাইরুলের পরিবারের নির্দেশে জানাযার সময় জানিয়ে মসজিদের মাইকে প্রচার করেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই জানান, বিদ্যুতে শীমফুলের মৃত্যু হয়েছে বলে মাইকে প্রচার হয়েছে এবং জানাযার সময় উল্লেখ করা হয়েছে। তারা আরো জানায়, সোহেল একজন নাবালক এবং তার সাথে শীমফুলের প্রেমের সম্পর্কের কথা কখনো ছিলনা ও শুনিনি, তাহলে শীমফুল অন্তঃ¯^ত্ত¡া কিভাবে? যদি তাই হয়, তাহলে অন্য কারো সাথে শীমফুলের সম্পর্ক থাকতে পারে। সোহেলের এ ঘটনাটি কেউ কোন দিনই শুনেনি। খাইরুল ষড়যন্ত্রমূলকভাবে সোহেল ও তার পরিবারকে ফাঁসাতে এ মামলা করেছে। এব্যাপারে শিবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ হাবিবুল ইসলাম হাবিব জানান, মনোহরপুরে যে ঘটনাটি ঘটেছে তা সত্যতা পাওয়া গেছে। সোহেল ও শীমফুলের প্রেমের সর্ম্পকের কারণে অন্তঃ¯^ত্বা মেয়েটি। যার ফলে বিয়ের দাবি করে সে। বিয়েতে মত না দেয়ায় মেয়েটি আন্তঃ¯^ত্ত¡া হওয়ায় আত্মহত্যা করে। এঘটনায় থানা মামলা হয়েছে। মামলাটি চলমান রয়েছে। আসামী গ্রেফতারের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে অফিসার ইনচার্জ হাবিব বলেন, আসামী এখনো গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। আসামী গ্রেফতাতের চেষ্টা করছি। এছাড়াও আসামীর কম বয়স হওয়ায় আমরা চিন্তার মধ্যে রয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *