Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে পদ্মা নদীর একটি ফেরী ঘাটের দখল নিতে বেপরোয়া সন্ত্রাসী চেয়ারম্যান ফয়েজের ক্যাডারদের রুবেল নামে যুবকের দুই হাতের কব্জি কেটে নেয়ার মামলায় প্রধান আসামী ইউপি চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিনসহ ৫ জনের ৪ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। শুক্রবার বিকেলে শিবগঞ্জ থানা পুলিশ ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আসামীদের আদালতে হাজির করলে চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টেট আদালতের আমলী আদালত ‘খ’ অঞ্চলের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাইনুল হোসেন প্রত্যেকের ৪ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।
আসামীরা হলো, শিবগঞ্জ উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. ফয়েজ উদ্দিন ও তার সহযোগী তারেক আহেম্মদ, আলাউদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম ও তারিক হাসান রিমন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, অধিকতর তদন্ত ও আলামত সংগ্রহের জন্য আসামীদের ৭ দিনের রিমান্ড চাওয়া হলে বিজ্ঞ আদালত প্রত্যেকের ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তিনি আরো জানান, এ মামলার আরো আসামীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
উল্লেখ্য, পদ্মা নদীর খেয়া ঘাট নিয়ে পূর্ব শত্রæতার জের ধরে ১৮ সেপ্টেম্বর বুধবার গভীর রাতে শিবগঞ্জ উপজেলার উজিরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফয়েজ উদ্দিন ও তার লোকজন শিবগঞ্জ উপজেলার নয়ালাভাঙ্গা ইউনিয়নের লাভাঙ্গা গ্রামের খোদাবক্সের ছেলে রুবেল হোসেনকে রাতের আঁধারে চোখ বেঁধে তুলে নিয়ে গিয়ে দুটি হাতের কব্জি কেটে ফেলে। বর্তমানে রুবেল রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় আহত রুবেলের মা রুলি বেগম ফয়েজকে মুল আসামী করে ২২ জনের নামে শিবগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। প্রেক্ষিতে পুলিশ বৃহস্পতিবার জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে ৫ জনকে গ্রেফতার করে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *