Sharing is caring!

20160830_093646শিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ বর্তমান সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে ছোট ছোট শিশুরা বড় হচ্ছে। তবে, এর সাথে কিছু শিশুকে কাজে লাগিয়ে ডিজিটাল পদ্ধতিতে বিভিন্ন দোকানের পণ্য ক্রয় করার নামে জাতিয়াতি করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে একটি জালিয়াতি চক্র। আর এই ডিজিটাল পদ্ধতির জালিয়াতি ধরা পড়ে মিঞা ফ্যাশনের সিসি ক্যামরাতে। গত সোমবার এমন একটি ঘটনা ঘটেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার কানসাট ক্লাব সুপার মার্কেটে। জানা গেছে, ক্লাব সুপার মার্কেটের একটি বস্ত্র বিতান ও একটি সু-ষ্টোর থেকে আনুমানিক ১০ বছরের শিশু মিঞা ফ্যাশন থেকে একটি শার্ট ও একটি প্যান্ট এবং ওই মার্কেটে একটি জুতা সেন্ডেলে দোকান সেন্ডেল কিনতে আসে। প্রথমে সেন্ডেলে দোকানে গিয়ে এক জোড়া সেন্ডেল এবং পরে মিঞা ফ্যাশন থেকে শার্ট প্যান্ট পছন্দ করে। ওই শিশুটি উভয় দোকান মালিককে বলে বাজারে এম আর মার্কেটের রমনী সাজসোজ্জা ও খেলা ঘরে আমার বাবা বসে আছে তাকে দেখিয়ে আসি সেন্ডেল ও শার্ট-প্যান্ট হয়েছে কি না। দোকানদাররা শিশুটি কথা বিশ্বাস করে ছেড়ে দেয়। কিন্তু সে আর ফিরে আসেনি। এব্যাপারে মিঞা ফ্যাশনের মালিক আব্দুল্লাহ ইবনে কাইউম (সুজন মিঞা) জানান, সোমবার বিকেল ৫টা ৫৭ মিনিটে শিশুটি আমার দোকানে আসে এবং শার্ট-প্যান্ট পছন্দ করে। পরে পাশের মার্কেটে বাবা বসে আছে বলে বাবা কে দেখিয়ে আসছি এবং টাকাসহ বাবা কে সাথে নিয়ে আসছি বলে চলে যায়। কিন্তু তার নাম পরিচয় জানতে চাইলে সে শিশুটি সব ভূল ঠিকানা দেয়। তবে, যদি শিশু আবার এলাকাতে আসে সিসি ক্যামরায় ধারণকৃত ভিডিও দেখে সনাক্ত করতে পারবো বলে জানান। তবে সুজন মিঞা সবার প্রতি অনুরোধ করে বলেন, আপনারা সকলে শিশুর অভিভাবক ছাড়া কোন কিছু দিবেন না। তবে তিনি এঘটনাকে ডিজিটাল পদ্ধতিতে জালিয়াতি বলে আ¶ায়িত করেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *