Sharing is caring!

President & Secretary picশিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ দলিল লেখক সমিতির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন ১৪ জুলাই বৃহস্পতিবার অনুষ্ঠিত হয়। সম্পাদক পদে কোন প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী ছাড়াই বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম (সিলু) এবং সভাপতি পদে ডামি প্রার্থী হিসেবে তোজাম্মেল নামের একজনের সাথে প্রতিদ্বীতা করছেন বর্তমান সমিতিটির সভাপতি ফাইজুদ্দিন আহমেদ। সাধারণ সম্পাদক পদে কোন প্রতিদ্বন্দী না থাকায় এবং বর্তমান কমিটির অধিনে নির্বাচন হওয়ায় একপেসে এ নির্বাচনে আবারো সম্পাদক পদে বিজয়ী হতে চলেছেন আশরাফুল ইসলাম সিলূ। এদের বিরুদ্ধে রয়েছে চাঁদাবাজি ও জাল দলিল তৈরীর মাধ্যমে মোটা অংকের অর্থ আদায়ের অভিযোগসহ নানা অভিযোগ এবং এ ব্যাপারে দুদক, জেলা প্রশাসনসহ বিভিন্ন দপ্তরে এ নিয়ে অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে। যা তদন্তাধীন রয়েছে। বিশেষ করে ক্ষমতার অপব্যবহার করে আহŸায়ক কমিটির হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর না করেই এককভাবে বর্তমান কমিটির অধিনে অবৈধভাবে নির্বাচন করছেন তারা বলে সমিতির সদস্য তাজুল ইসলাম দাবী করেছেন। তিনি আরও জানান, গত ২০১৩ সালের নির্বাচনে আহŸায়ক কমিটির হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করার পর সুষ্ঠু নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ক্ষমতায় আসে এই দুই চাঁদাবাজির গডফাদার। আর তাদের ক্ষমতায় আসার পরপরই বেড়েই চলেছে চাঁদাবাজির পরিমান। নির্বাচন বিষয়ে সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম (সিলু)-র কাছে জানতে চাইলে সাংবাদিকদের সাথে অসৌজন্যমুলক আচরন করেন এবং ব্যস্ততা দেখিয়ে এড়িয়ে যান। অনুসন্ধানে জানা গেছে ২০১৪ সালে দলিল লেখক সমিতির সাধারন সম্পাদক  আশরাফুল ইসলাম সিলুর সম্পাদনা ও সহায়তায় যুদ্ধ কুমার তার মা রাধারাণী নামক এক দরিদ্র বয়ষ্ক মহিলার রেকডীয় ০৩৫৭ শতক জমিসহ পার্শ্ববর্তী আলহাজ্ব মোঃ আকবর হোসেনের রেকডীয় ১০ শতক জমির (মোট জমির পরিমান ১৩৭৫ শতক ) দলিল সৃষ্টি করে তার মাকে বাড়ি থেকে বের করে দিলে ঐ বৃদ্ধা চাঁপাইনবাবগঞ্জ যুগ্ম জজ আদালতে দলিল বাতিলের একটি মামলা দায়ের করেন (যার নম্বর-৩৬/২০১৪)। আকবর হোসেনের রেকডীয় ১০ শতক জমি মামলার বাদী বৃদ্ধা রাধারাণীর নয় এবং তার নামীয় জমিটির সৃষ্ট দলিল অবৈধ দাবী করে তার দায়েরকৃত মামলাটি দীর্ঘ প্রায় ১ বছর চলার পর বৃদ্ধা সে মামলায় চলতি বছর ২৮ ফেব্রæয়ারী আদালতে রায় পান। আদালত শিবগঞ্জ সাব রেজিষ্ট্রি অফিসকে সেই ভ‚য়া দলিলটি রদ রহিতের আদেশ দেন। রায়ে অবৈধ দলিলটি বাতিল হওয়ায় বৃদ্ধা তার জমি ফিরে পান এবং পাশ্ববর্তী জমির মালিকেরও এতে কিছুটা শস্তি ফিরে আসে। শুধু ঐ বৃদ্ধায় নয় আরও অনেক এ ধরনের ভ‚য়া দলিল তৈরীর নজির রয়েছে সমিতির এ নেতার বিরুদ্ধে। এতে একদিকে ভুক্তভোগীরা যেমন হয়রানীর শিকার হচ্ছে, তেমনি সরকারও বিপুল পরিমান রাজ¯^ আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। উল্লেখ্য চলতি বছরের ১৯শে এপ্রিল দৈনিক উত্তরা প্রতিদিন ও ১৭ই মে একযোগে স্থানীয় ও আঞ্চলিক পত্রিকা ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ, আমাদের রাজশাহী, রাজবার্তা, লালগোলাপসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে সভাপতি ফাইজুদ্দিন আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম (সিলু)-র বিরুদ্ধে কোটি টাকা চাঁদাবাজির অভিযোগের সংবাদ প্রকাশ হয়। এছাড়াও ২ জুন জাতীয় পত্রিকা সমকাল ও স্থানীয় চাঁপাই দৃষ্টি পত্রিকায় আবারও সংবাদ প্রকাশিত হয়। এ সংবাদ প্রকাশের পর এবং এ সংক্রান্ত সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঐ সব দপ্তর থেকে ইতিমধ্যেই এ ব্যাপারে তদন্তের আদেশ দেয়া হয় যা বর্তমানে প্রক্রিয়াধীন। অন্যদিকে এ সংক্রান্ত জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের একটি তদন্ত আদেশ তদন্তের জন্য প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বার্হী কর্মকর্তা সৈয়দ ইরতিজা আহসান এ প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *