Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার \ শিক্ষক সংকটের কারণে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ সরকারি মডেল হাইস্কুলে। এতে চরম দুশ্চিন্তাগ্রস্থ অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা। পদ শুন্য প্রতিষ্ঠান প্রধানেরও। দীর্ঘদিন থেকেই চলছে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক দিয়ে। ফলে প্রশাসনিক সমস্যাও সৃষ্টি হয়েছে। জরুরী ভিত্তিতে শিক্ষক সংকট দূর করে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার সঠিক পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জোর দাবী অভিভাবকদের।
জানা গেছে, ১৯৪৮ সালে শিবগঞ্জ মডেল হাইস্কুল প্রতিষ্ঠার পর ১৯৮৭ সালে ১৪ই জানুয়ারি জাতীয়করণ হয়। বর্তমানে এ স্কুলে ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী। স্কুলে ১৯জন শিক্ষকের প্রয়োজন থাকলেও, মধ্যে কর্মরত রয়েছে মাত্র ৮ জন শিক্ষক। এতে সকল বিষয়ে শিক্ষার্থীদের পাঠদানে হিমশিম খাচ্ছে শিক্ষকেরা। প্রধান শিক্ষক ও সহকারি প্রধান শিক্ষকসহ ১১ জন শিক্ষকের পদ দীর্ঘদিন যাবৎ শূন্য থাকায় একদিকে প্রশাসনিক অবস্থার অবনতি হয়েছে, অন্যদিকে শিক্ষার্থীদের পড়ালেখার মারাত্মকভাবে ক্ষতি হচ্ছে। শিবগঞ্জ সরকারি মডেল হাইস্কুলে অধ্যয়নরত শিক্ষার্থীরা জানান, এ স্কুলে ভৌত বিজ্ঞান, সামাজিক বিজ্ঞান ও শরীরচর্চা বিষয়ের কোন শিক্ষক নেই। এছাড়া বাংলা বিষয়ে দু’জনের মধ্যে একজন ও ইংরেজি একজন শিক্ষক না থাকায় নিয়মিত সুষ্ঠভাবে পাঠদান বলতে যা বোঝায় সেটা আমাদের স্কুলে কোনদিনই হয়না। এ ব্যাপারে সরকারি মডেল হাইস্কুলে প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) হারুন অর রশিদ জানান, স্কুলে শিক্ষক সংকটের বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে একাধিবার জানানো হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত শিক্ষকের শূন্যপদ পূরণ করা হয়নি। তবে শীঘ্রই শিক্ষকের পদগুলো পূরণ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। এব্যাপারে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আব্দুল লতিব জানান, সরকারী প্রতিষ্ঠান, সরকারের দায়িত্ব, সরকার যেভাবে কাজ করতে বলেন, সেভাবেই আমাদের কাজ করতে হয়। শিক্ষক সংকটের কারণে শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার ক্ষতি হচ্ছে, এটা ঠিক। অবশ্যই শিক্ষক সংকট মেটানো প্রয়োজন। কিন্তু সরকারের পদক্ষেপ ছাড়া জেলা শিক্ষা অফিসের করার কিছু নেই। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা প্রসারে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। কিছুদিন আগেই শিক্ষক সংকট দূর করার জন্য সরকারী শিক্ষক পদে পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। খুব কম সময়ের মধ্যেই এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শুন্যপদগুলো পুরণ করা সম্ভব হবে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *