Sharing is caring!

মহান একুশে ফেব্রুয়ারী যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের পাশাপাশি রক্ত দিয়ে প্রতিষ্ঠিত করা এই বাংলা ভাষার শুদ্ধ প্রচলন ও দেশের সর্বত্র বাংলা ভাষার ব্যবহার নিশ্চিত করার আহবান জানিয়েছেন জেলার বিশিষ্ট জনেরা। বিভিন্নভাবে বর্তমানে বাংলা ভাষার শুদ্ধ ব্যবহার হচ্ছে না। সর্বত্র বাংলা ব্যবহারের জন্য জাতীয় সংসদে আইন অনুমোদন দেয়া হলেও তা বাস্তবে অনেকটায় পালন হচ্ছেনা। এমনটি দেশের অফিস-আদালতেও শতভাগ বাংলা ব্যবহার হয় না। বিদেশের সাথে যোগাযোগের জন্য ইংরেজী বা অন্য ভাষা ব্যবহার বন্ধ করতে হবে, তা নয়, কিন্তু যে ভাষার জন্য দেশের বীর সন্তানরা জীবন উৎসর্গ করলো, সেই ভাষার অপব্যবহার হওয়া উচিৎ নয়। আমাদের নতুন প্রজন্মকে সঠিক বাংলা ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। এটি করতে হবে সরকারের পাশাপাশি সামাজিকভাবেও। অন্যথায় এক সময় ভুলে ভুলে ভরে যাবে আমাদের এই মাতৃভাষা। তাই শুদ্ধ বাংলার প্রচলন ও ব্যবহার নিশ্চিত করার উদ্যোগ নিতে এগিয়ে আসবেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ ও সমাজের বিশিষ্ট জনেরা এমনটায় আশা করছেন সচেতন মহল। উল্লেখ্য, বুধবার চাঁপাইনবাবগঞ্জে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ভাবগাম্ভির্য পরিবেশে নানা কর্মসুচীর মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে মহান একুশে ফেব্রুয়ারী শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। দিবসটি উপলক্ষে রাতে একুশের প্রথম প্রহরে নবাবগঞ্জ সরকারী কলেজ চত্বরে শহীদ মিনারে পুস্পার্ঘ অর্পণ করা হয় জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, জেলা পরিষদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা, সড়ক ও জনপথ বিভাগ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি, পৌর কর্মচারী সংসদ, আওয়ামীলীগ, ছাত্রলীগ, জাসদ, বিএনপিসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে। অমর একুশে পালনে প্রভাত ফেরী, বিভিন্ন শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণ, চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, রচনা লিখন, দেশাত্ববোধক সংগীত, কবিতা আবৃত্তি ও একুশের তাৎপর্য তুলে ধরে আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসুচী নেয়া হয়। জেলার বৃহত্তম চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারী কলেজ শহীদ মিনারসহ বিভিন্ন শিক্ষা ও অনান্য প্রতিষ্ঠানের শহীদ মিনারগুলিতেও পূষ্পার্ঘ্য অর্পণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। শিক্ষা ও অনান্য প্রতিষ্ঠানগুলোতে পৃথক পৃথকভাবে কর্মসূচী পালন করে। জেলার সকল উপজেলাতে শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে দিবসের কর্মসূচী আরম্ভ হয়। দিবসটিতে সরকারি কর্মসুচির পাশাপাশি বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সামাজিক সংগঠন নানা কর্মসুচি পালন করে। অন্যদিকে, শিবগগঞ্জ, নাচোল, গোমস্তাপুর ও ভোলাহাট উপজেলায় দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসুচী পালিত হয়।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *