Sharing is caring!

সমবায়ের নামে জেলার শিবগঞ্জ উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের দলিল লেখক সমিতির প্রতারণার বিষয়টি খতিয়ে দেখা প্রয়োজন বলে মনে করছেন সচেতন মহল। আর সমিতির প্রতারণার কারণে যদি সরকার রাজ¯^ হারায়, তাহলে তদন্ত ¯^াপেক্ষে অবশ্যই কঠোর আইনী ব্যবস্থা নেয়াও প্রয়োজন। দীর্ঘদিন থেকেই এই সমিতির প্রতারণার কারণে সরকার মোটা অংকের রাজ¯^ হারিয়েছে বলে অনুসন্ধানে জানা যায়। জমি রেজিষ্ট্রি করতে আসা সাধারণ মানুষের কাছ থেকে সমিতির নামে এক প্রকার জোর করেই টাকাগুলো আদায় করা হয়। এটা এক প্রকার চাঁদাবাজির মধ্যেই পড়ে। সাধারণ মানুষ একান্ত বাধ্য হয়েই অনিচ্ছা সত্তেও টাকা পরিশোধ করে দলিল রেজিষ্ট্রি করে থাকে। তা না হলে দলিল রেজিষ্ট্রি বন্ধ হয়ে যাবে। যতক্ষন সমিতির জোরপূর্বক আদায় করা চাঁদা পরিশোধ না হবে, ততক্ষন দলিল রেজিষ্ট্রি বন্ধ করে দেয়ায় অসহায় হয়ে টাকা দিতে বাধ্য হয়। তাই এসব চাঁদাবাজি ও প্রতরণার বিষয়টি খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এমনটায় আশা করছেন ভুক্তভোগীরা ও সচেতন মহল। উল্লেখ্য, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার অফিসের দলিল লেখক সমিতির ব্যাপক অনিয়ম, দূর্ণীতিসহ অর্ধ কোটি টাকা জালিয়াতির বিভিন্ন তথ্য ও অভিযোগ পাওয়া গেছে। দলিল তৈরীর নামে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে লাখ লাখ টাকা। জালিয়াতি চক্রের কারণে বিপুল পরিমাণের রাজ¯^ থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। অনুসন্ধানে জানা গেছে, শিবগঞ্জ দলিল লেখক সমবায় সমিতিটি প্রায় ৮ বছর থেকে সমবায়ের নাম দিয়ে ব্যাপক অর্থের পাহাড় গড়ে তুলেছে। সমিতিটির শিবগঞ্জ শাখা সোনালী ব্যাংকে ৩৩১৫ হিসাব নম্বরে প্রায় ৫৮ লক্ষ টাকা জমা রয়েছে। আর এই শাখায় সমিতিটির সমবায় নাম বাদ দিয়ে “শিবগঞ্জ দলিল লেখক সমিতি” নাম লিখে হিসাবটি খোলা হয়েছে। কিন্তু তাদের চাঁদা আদায়ের তালিকায় “শিবগঞ্জ লেখক সমবায় সমিতি” লেখা রয়েছে। প্রকৃতপক্ষে সমিতির নাম অফিসে উল্লেখিত আছে শিবগঞ্জ দলিল লেখক সমবায় সমিতি। তাদের আয়-ব্যয়ের হিসাব ও কার্যক্রম চলছে মেমো এবং রেজুলেশন ছাড়াই। প্রতিনিয়ত সমিতির ১৩৯ জন দলিল লেখকের কাছ থেকে দলিল প্রতি ৭‘শ থেকে ১ হাজার টাকা চাঁদা নেওয়ারও অভিযোগ রয়েছে। সমিতিটি ঘোষিত চাঁদা আদায়ের তালিকা অনুযায়ী কবলা, হেবাবিল এওয়াজনামা, হেবানামা, এওয়াজনামা ও সাধারণ দানপত্র দলিলে ব্যাপক পরিমানে চাঁদা আদায় করা হচ্ছে। এই নিয়ে সাধারণ মানুষ পড়ছেন চরম বিপাকে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *