Sharing is caring!

চালু থাকবে অনলাইন মাধ্যম ও ফেইসবুক

সম্পাদক পর্যায়ের জরুরি বৈঠক ॥ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার

৪টি দৈনিক পত্রিকার ছাপা সংস্করণ সাময়িক বন্ধ

 

♦ স্টাফ রিপোর্টার

বিশ্বে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। প্রতিদিনই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু এবং আক্রান্তের সংখ্যা। প্রাণঘাতী এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বাংলাদেশেও। প্রতিদিনই দেশে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। দেশে করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে সরকার গত ১৭ মার্চ থেকে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে। গত ২৬ মার্চ থেকে আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত সকল সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে সরকারীভাবে। ২৬ মার্চ থেকে বন্ধ রয়েছে গণপরিবহনও। করোনার প্রভাবে ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলা শহরের অনেক দৈনিক পত্রিকার ছাপা সংস্করণ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পত্রিকা এজেন্টরাও পত্রিকা নেয়া এবং সরবরাহ বন্ধ করে দিয়েছেন। দেশের এইরকম পরিস্থিতিতে এ পর্যন্ত নিরলসভাবে ঝুঁকি নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৪টি দৈনিক পত্রিকা ‘দৈনিক চাঁপাই দৃষ্টি, ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ’ ‘দৈনিক চাঁপাই চিত্র, ও ‘দৈনিক গৌড় বাংলা’ নিয়মিত প্রকাশ করে আসছে। কিন্তু বর্তমানে দেশের পরিস্থিতি আরো বেশি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় এবং সর্বোপরি প্রকাশনার অন্যতম উপকরণ নিউজপ্রিন্ট কাগজ এবং ট্রেসিং পেপার, প্রিন্ট কাটিজ সংকটে পত্রিকা প্রকাশ অব্যাহত রাখা চরম কস্টকর ও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এই অবস্থায় জেলার চারটি দৈনিক পত্রিকার সম্পাদক পর্যায়ের এক জরুরি বৈঠক বসে মঙ্গলবার। চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের বাবু গিরিশ চন্দ্র মৌলিক মার্কেট (শিল্পকলা মার্কেট) “দৈনিক চাঁপাই দর্পণ” কার্যালয়ে ৭ এপ্রিল মঙ্গলবার বেলা ১২টায় অনুষ্ঠিত এ জরুরি বৈঠকে যোগ দেন-‘চাঁপাই চিত্র’র সম্পাদক মো. কামাল উদ্দীন, ‘চাঁপাই দর্পণ’র সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম রঞ্জু এবং চাঁপাই দৃষ্টির নির্বাহী সম্পাদক রফিকুল আলম, চাঁপাই চিত্রের নির্বাহী সম্পাদক অলিউজ্জামান রুবেল, গৌড় বাংলার ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আজিজুর রহমান শিশির, চাঁপাই দৃষ্টির বার্তা সম্পাদক কামাল সুকরানা ও গৌড় বাংলার বার্তা সম্পাদক সাজিদ তৌহিদ। বৈঠকে চলমান করোনা ভাইরাসের প্রভাব নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয় এবং সর্বসম্মতিক্রমে জেলার ৪টি দৈনিক পত্রিকার ছাপা সংস্করণ সাময়িক বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। বন্ধ রাখার জন্য সুনির্দিষ্ট কয়েকটি কারণ চিহ্নিত করা হয়। কারণগুলো হচ্ছে, নিউজপ্রিন্ট ও ট্রেসিং সংকট, প্রিন্টারের জন্য প্রয়োজনীয় টোনার সংকট, বিভিন্ন স্থানে পত্রিকা পাঠানো সংকট, বিজ্ঞাপনের অপ্রতুলতা ও বিজ্ঞাপন বিল আদায়ে সংকট এবং সর্বোপরি গণমাধ্যমকর্মীদের অধিকতর সুরক্ষা। ‘সম্পাদকগণের বৈঠকে সিদ্ধান্ত মোতাবেক পত্রিকায় ঘোষণা’ “করোনাভাইরাস সংক্রমন জনিত কারণে পত্রিকা প্রকাশনার জন্য বিভিন্ন উপকরণের সমস্যা সৃষ্টি হওয়ায় জেলা থেকে প্রকাশিত ৪টি দৈনিক পত্রিকার সম্পাদকগণের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে ‘দৈনিক চাঁপাই দর্পণ’ এর প্রকাশনা সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হলো। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে প্রকাশনার কাজ আবারও শুরু করা হবে। তবে অনলাইন সংস্করণ ও ফেসবুক পেইজ চালু থাকবে।” তবে চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনা ভাইরাস নিয়ে কোনো ধরনের গুজবের ডালপালা যেন ছড়াতে না পারে এবং সরকার ও প্রশাসনকে সহায়তা করার লক্ষে পত্রিকাগুলো তাদের নিজ নিজ অনলাইন মাধ্যম সর্বাত্মকভাবে চালু রেখে প্রকৃত তথ্য তুলে ধরার বিষয়ে বৈঠকে সকলেই একমত পোষণ করেন। একইসঙ্গে দেশে করোনা পরিস্থিতি সরকার কর্তৃক স্বাভাবিক ঘোষিত হওয়ার পর আবারো একসঙ্গে চালু করার বিষয়েও একমত প্রকাশ করা হয়। এছাড়া করোনার দুর্যোগকালে পত্রিকাগুলোর আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি কাটিয়ে উঠতে প্রণোদনা প্যাকেজের জন্য জেলা প্রশাসনের কাছে সম্মিলিতভাবে আবেদন করার সিদ্ধান্তও গৃহীত হয় বৈঠকে। বৈঠকে সরকারি নির্দেশনা মেনে চলা এবং প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বের না হওয়ার জন্য জেলাবাসীর প্রতি অনুরোধ জানানো হয়। কেননা এই মুহূর্তে সতর্ক থাকা এবং ঘরে থাকাটাই দুর্যোগ কাটিয়ে ওঠার অন্যতম উপায় বলে বৈঠকে মতামত দেয়া হয়।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *