Sharing is caring!

সাবমেরিন ক্যাবলে বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেটে

সংযুক্ত হলো সন্দ্বীপবাসী

৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনে টানা তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতায় এসেছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ সরকার। টানা তৃতীয়বার ক্ষমতায় থাকাকালীন আওয়ামী লীগ সরকার এমন কোনও ক্ষেত্র নেই যে উন্নয়ন করেনি। ফোর লেন সড়ক, নদী-নালা, শিক্ষা, যোগাযোগসহ সর্বক্ষেত্রেই সরকারের উন্নয়ন চোখে পড়ার মতো। তবে সরকার সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন করেছে বিদ্যুৎ ক্ষেত্রে। আগে যেখানে ঘন ঘন লোডশেডিং হতো এখন সেখানে বিদ্যুৎ থাকে দিন-রাত ২৪ ঘণ্টা। ২০০১ সালে বিএনপি সরকার ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ উৎপন্ন হতো মাত্র ছয় হাজার মেগাওয়াট। ২০০৯ সালে নিরঙ্কুশ জয় পেয়ে পর্যায়ক্রমে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে বিদ্যুৎ উৎপাদন ঠেকেছে ২০ হাজার মেগাওয়াটের বেশি। যা এককালে ছিলো কল্পনারও বাইরে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের ইশতেহারেও উল্লেখ ছিলো দেশের কোনও মানুষ বিদ্যুৎবিহীন থাকবে না। এরই ধারাবাহিকতায় নির্বাচনে জয়ের মাত্র এক মাসের মাথায় বিদ্যুতের অভাবনীয় সাফল্য এনেছে সরকার। দেশের মূল খণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে সাগরের তলদেশ দিয়ে সাবমেরিন ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করেছে শেখ হাসিনার সরকার। শুধু বিদ্যুৎ দিয়ে ক্ষান্ত হননি তিনি। দ্বীপের যাবতীয় উন্নয়ন অব্যাহত রাখার জন্য ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপনও করা হয়েছে সেখানে। যা আগে কখনোই কল্পনা করা যায়নি।

৬ জানুয়ারি বুধবার সকালে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বারবার ভাঙন ও মূল ভূ-খণ্ডের বাইরে থাকা সন্দ্বীপ বরাবরই উন্নয়নের কার্যক্রমের বাইরে ছিল। দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় উন্নয়নের কার্যক্রমে সংযোগ থাকলেও সন্দ্বীপ ছিলো এর ব্যতিক্রম। দেশের প্রতিটি খণ্ডে উন্নয়নের কাতারে নিয়ে যেতে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড থেকে ১৬ কিলোমিটার দীর্ঘ সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপন করে বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট সেবা পৌঁছে দেয়া হয়েছে সন্দ্বীপবাসীকে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *