Sharing is caring!

salman_bg_640857954দর্পণ ডেস্ক : গাড়ি চাপা দিয়ে অনিচ্ছাকৃত হত্যার দায়ে সালমান খানের মামলার শুনানি ১ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত করেছেন মুম্বাই উচ্চ আদালত। মামলা-সংক্রান্ত ‘পেপার বুক’ ও অন্যান্য কাগজপত্র তৈরি হয়নি জানিয়ে শুনানির দিন পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন করেন তার আইনজীবী অমিত দেশাই। বিফল হননি তিনি। দ্রুত কাগজ তৈরির নির্দেশ দিয়ে গত ১৫ জুন মামলার শুনানি আগামী মাস পর্যন্ত মুলতবী করেছেন বিচারপতি এআর জোশি। মহারাষ্ট্র সরকারের আইনজীবী এসএস সিন্ধেও শুনানি পিছিয়ে যাওয়া নিয়ে আপত্তি তোলেননি। এ সময় সালমান আদালতে ছিলেন না। তার পক্ষে হাজির হন বোন আলভিরা খান। গত ৬ মে মুম্বাইয়ের দায়রা আদালতে সালমানকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। যদিও নিম্ন আদালতের এই রায়ের ওপর স্থগিত‍াদেশ জারি করে মুম্বাই উচ্চ আদালত। সঙ্গে ৩০ হাজার রুপির বিনিময়ে জামিন দেওয়া হয় ৪৯ বছর বয়সী এই তারকাকে। সেই মামলার নিষ্পত্তির জন্য বিচারপতি দু’পক্ষের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ১ জুলাইয়ের মধ্যে তৈরির নির্দেশ দেন। ২০০২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর ভোররাতে বান্দ্রার হিল রোডে আমেরিকান এক্সপ্রেস বেকারির সামনে সালমানের টয়োটা ল্যান্ডক্রুজার গাড়ির চাপায় মৃত্যু হয় এক পথচারীর। আহত হন ফুটপাতে ঘুমিয়ে থাকা আরও চারজন। মদ্যপ অবস্থায় বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালাতে গিয়েই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ ওঠে বলিউডের এই সুপারস্টারের বিরুদ্ধে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *