Sharing is caring!

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক কোথায়,

কেমন আছেন?

♦ দর্পণ ডেস্ক

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ কোথায়? তিন সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে তিনি অফিস করছেন না। অসুস্থতাজনিত কারণে সাময়িক সময়ের জন্য অফিস করছেন না বলে জানা গেছে। তার পরিবর্তে ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

তিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরে তিনি অসুস্থ থাকলেও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বা স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে তিনি কী রোগে ভুগছেন সে সম্পর্কে কোনো সুস্পষ্ট বক্তব্য দেয়া হয়নি। স্বাস্থ্য অধিদফতরের কর্মকর্তাদের কাছে জিজ্ঞাসা করেও এর সদুত্তর মিলছে না।

এদিকে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। শুরুর দিকে বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করলেও মাঝে শ্বাস প্রশ্বাসের কষ্ট দেখা দিলে তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে হয়।

সরকারিভাবে করোনা চিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতাল প্রস্তুত করা হলেও কেন তাকে সিএমএইচে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হলো এ নিয়েও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সমালোচনা হয়েছে। অনেকেই প্রশ্ন তুলে বলেছেন, ‘স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের নিজেরই সরকারি হাসপাতালের ওপর ভরসা নেই।’

abul-kalam-azad-2

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কিংবা স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে দাফতরিকভাবে স্বাস্থ্য মহাপরিচালক কী রোগে ভুগছেন তা না বলায় সাধারণ মানুষ অন্ধকারে রয়েছেন।

দেশে গত ৮ মার্চ প্রথম করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। গতকাল (৩১ মে) পর্যন্ত করানো আক্রান্তের সংখ্যা ৪৭ হাজার ছাড়িয়েছে। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৫০ জন। গতকাল একদিনে সর্বোচ্চ ৪০ জনের মৃত্যু হয়। সংক্রমণ ও মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। এমন এক পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্য মহাপরিচালকের অনুপস্থিতি এবং তার অসুস্থতা নিয়ে লুকোচুরি জনমনে নানা প্রশ্নের উদ্রেক হয়েছে।

দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের বেশ কিছুদিন আগে থেকে সংক্রমণ প্রতিরোধে ব্যাপক তৎপর ছিলেন স্বাস্থ্য মহাপরিচালক। স্বাস্থ্য সেক্টরে তিনি একজন সৎ কর্মকর্তা হিসেবে সুপরিচিত। করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে বি‌ভিন্ন সিদ্ধান্ত গ্রহণের কারণে ই‌তিবাচক ও নে‌তিবাচক উভয় ধর‌নের আলোচনা ও সমালোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন তিনি। অসুস্থ হওয়ার আগে পর্যন্ত তিনি দিনরাত অবিরাম পরিশ্রম করেন। দেশ-বিদেশের বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনা চালিয়ে কীভাবে নতুন এই ভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধ , কীভাবে সারা দেশের হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত ও চিকিৎসক-নার্সসহ স্বাস্থ্যকর্মীদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রীসহ অন্যান্য সুবিধাদি নিশ্চিত করা যায় তা নিয়ে ব্যাপক ছুটোছুটি করেন। তখন নানাজনের সঙ্গে কাজের প্রয়োজনে দেখা-সাক্ষাৎ হয় তার। সেখান থেকেই তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন।

গত ১২ মে সাময়িকভাবে মহাপরিচালকের দায়িত্ব হস্তান্তর প্রসঙ্গে লেখা স্বাস্থ্য মহাপরিচালক স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে বলা হয়, ‘আমি নিম্নস্বাক্ষরকারী স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাক্তার আবুল কালাম আজাদ, অসুস্থতাজনিত কারণে সাময়িক সময়ের জন্য অফিসে আসতে পারব না। এই সাময়িক সময়ের জন্য পরবর্তী নির্দেশনা না দেয়া পর্যন্ত অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডাক্তার নাসিমা সুলতানা মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করবেন।’

abul-kalam-azad-3

এতে আরও বলা হয়,’মহাপরিচালকের বর্তমান শারীরিক অবস্থায় তিনি বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন এবং অবস্থার অবনতি না হলে তিনি বাড়িতে থেকে সীমিত পর্যায়ে পত্র স্বাক্ষর, নির্দেশনা প্রদান ও ভিডিও কনফারেন্সে যোগদান করার চেষ্টা করবেন। এ আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।’

জাগো নিউজের এ প্রতিবেদক আজ (১ জুন) ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানার কাছে স্বাস্থ্য মহাপরিচালক কোথায়, তিনি কী ধরনের অসুস্থতায় ভুগছেন- তা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘স্বাস্থ্য মহাপরিচালক মহোদয় আজ থেকে অফিস করবেন বলে শুনেছি। তিনি অফিসে এসেছেন কি না, এ মুহূর্তে বলতে পারছি না।’

তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কি না, এ প্রশ্নের উত্তরে ডা. নাসিমা সুলতানা বলেন, ‘এ ব্যাপারে তার দফতরের লোকজনকে প্রশ্ন করে দেখুন।’

বর্তমানে আপনি ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালকের দায়িত্বে আছেন, এমন কথা বললে তিনি উত্তর এড়িয়ে যান।

এ ব্যাপারে জানতে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *