Sharing is caring!

517x344শিবগঞ্জ প্রতিনিধি \ জোরপূর্বক বন্দরে এসে বন্দরের বরখাস্তকৃত ৪ কর্মচারী তাদের পুনর্বহালের আদেশ লিখিয়ে নেয়ার কারনে অনিদ্দিষ্টকালের জন্য বন্দর বন্ধ রাখার নির্দেশের ২ ঘন্টা পর জেলা প্রশাসকের আশ্বাসে বন্দর খোলা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে বন্দর সূত্র জানিয়েছে। তবে বন্দর কর্তৃপক্ষের দাবী বরখাস্ত হওয়া সে ৪ কর্মচারী মঙ্গলবার আবারো বন্দরে প্রবেশ করলে বা প্রবেশ করার চেষ্টা করলে বন্দর অনিদ্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ করে দেয়া হবে। এ ব্যাপারে পানামা পোর্ট লিংক লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার মিত্তাবুর রহমান বিষয়টি মোবাইল ফোনে নিশ্চিত করে আরও জানান, এ ব্যাপারে রাত ৮ টার দিকে পানামার ব্যাবস্থাপনা পরিচালক মেজর (অবঃ ) জাহাঙ্গীর  ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ  জেলা প্রশাসকের টেলিফোনে যোগাযোগের প্রেক্ষিতে পানামা বন্দরের দেয়া শর্তযুক্ত একটি স্মারকলিপি জেলা প্রশাসকের নিকট প্রেরনের পেক্ষিতে জেলা প্রশাসকের আশ্বাশে বন্দর খেলা রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। অন্যদিকে পানামার অপারেশন অফিসার মঈনুল ইসলাম জানান, জেলা প্রশাসকের আশ্বাসের প্রেক্ষিতে বন্দর চালুর সীদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে রাত ৮টার দিকে বন্দরের গেটে অপেক্ষামান ১১ টি ভারতীয় ফলের এবং ভারতীয় অন্যান্য ৩২টি পন্যবাহী ট্রাক বন্দরে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হয় এবং মঙ্গলবার থেকে ভারত থেকে আসা অন্যন্য পন্যবাহী ট্রাক যথানিয়মে বন্দরে প্রবেশ করবে বলে জানানো হয়। উল্লেখ্য, গত বছরের ২৪ জুন এবং একই বছরের অক্টোবর মাসে স্থায়ীভাবে বরখাস্তকৃত সহকারী ওয়াল হাউস সুপার আওয়াল হক, লাইনম্যান ট্রাফিক মোঃ আলাল হোসেন, মনিটরিং অফিসার সোহেল রানা এবং সহকারী ট্রাফিক ইন্সপেক্টর মেরাজুল ইসলাম সে সময়ের অতিরিক্ত মহাব্যবস্থাপক আবদুল্লাহ আল মামুনকে মারধর করে টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগে এবং এর কয়েকদিন পর বন্দরের একটি মাইক্রেবাসের গতিরোধ করে রাস্তায় মাইক্রোবাস ভাংচুর করে পানামার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মারধরের অভিযোগে বন্দর কর্তৃপক্ষ বরখাস্ত করার পর সোমবার দুপুরে জোড়পূবর্ক বেআইনীভাবে বন্দরে প্রবেশ করে তাদের পুনঃবহালের দাবী জানায়। এ সময় তারা পানামা কর্তৃপক্ষকে জিম্মি করে ম্যানেজার প্রশাসন ও অপারেশন ম্যানেজারের কাছ থেকে স্থানীয় এম.পি গোলাম রাব্বানীর সুপারিশক্রমে ঐ চার কর্মচারীকে চাকুরীতে পর্নবহাল করা হয়েছে এ মর্মে একটি অফিস আদেশ লিখিয়ে নেয়। বিষয়টি জানাজানির একপর্যায়ে পানামার ব্যাবস্থাপনা পরিচালক মেজর (অবঃ ) জাহাঙ্গীর তাতক্ষনিকভাবে স্থানীয় থানায় এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানিয়ে একটি আবেদনের পাশাপাশি এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার অনুরোধ জানিয়ে বিভিন্ন স্থানে অনুলিপি প্রেরন এবং সোমবার বিকেল ৪ টা থেকে বন্দর অনির্দ্দিষ্টকালের জন্য বন্ধের ঘোষনা দেন।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *