Sharing is caring!

স্টাফ রিপোর্টার \ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পৃথক অভিযানে জেলার কামালপুর ও কিরনগঞ্জ সীমান্ত থেকে ফেন্সিডিল উদ্ধার করেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জস্থ ৫৯ বিজিবি ব্যাটালিয়নের সদস্যরা। ৫৯ বিজিবি’র ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর মির্জা মাঝহারুল ইসলামের পাঠানো পৃথক প্রেসনোটে জানানো হয়, জেলার সীমান্তবর্তী কামালপুর বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকা দিয়ে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বাংলাদেশের ভেতরে অবৈধভাবে কিছু মাদকদ্রব্য প্রবেশের চেষ্টা করছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে বুধবার আড়াইটার দিকে কামালপুর বিওপির টহল কমান্ডার জেসিও নায়েব সুবেদার মোঃ রেনু মিয়া’র নেতৃত্বে একটি টহল দল নিজস্ব দায়িত্বপূর্ণ এলাকার সীমান্ত পিলার ১৮৯ হতে আনুমানিক ১ কিঃ মিঃ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে দৌলতবাড়ী বড়ই বাগান এলাকায় অভিযান চালায়। আনুমানিক পৌনে ৫টার দিকে কয়েকজন চোরাকারবারী বাংলাদেশের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে। এসময় টহল দলের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারীরা তাদের সাথে থাকা মালামাল ফেলে ভারতের দিকে পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে চোরাকারবারীদের ফেলে যাওয়া প্লাষ্টিক ব্যাগ হতে ১৩০ বোতল ভারতীয় ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এছাড়া, নিজস্ব গোয়েন্দা তথ্য ছিল বাংলাদেশের সীমান্তবর্তী কিরণগঞ্জ বিওপির দায়িত্বপূর্ণ এলাকা দিয়ে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী চোরাই পথে কিছু মাদদ্রব্য প্রবেশের চেষ্টা করার খবর পেয়ে বুধবার বিকেলে অত্র ব্যাটালিয়নের অধীনস্থ কিরণগঞ্জ বিওপির টহল কমান্ডার নম্বর হাবিলদার মোঃ মহব্বত হোসেনের নেতৃত্বে নিজস্ব দায়িত্বপূর্ণ এলাকার সীমান্ত পিলার ১৭৮/৪-এস হতে আনুমানিক ১০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে জমিনপুর মাদ্রাসা পোষ্ট নামক স্থানে অভিযান চালায়। আনুমানিক পৌনে ৬টার দিকে একটি মোটর সাইকেল এলাকায় প্রবেশ করে। সময় টহল দলের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারীরা পালিয়ে যাওয়া চেষ্টা করে। টহল দল ধাওয়া করে শিবগঞ্জ উপজেলার বনানীপুর বড় হাজিনগরের মোঃ রুহুল আমিনের ছেলে মোঃ ফিরোজ মিয়া (২৩) ও একই এলাকার খেপাস উদ্দিনের ছেলে মোঃ পিয়াজ উদ্দিন (১৯)কে ৮৮পিস ভারতীয় ইয়াবা, একটি মোটর সাইকেল, মোবাইল-২টি এবং সীম কার্ড ৩টিসহ আটক করতে সক্ষম হয়। আটককৃত মালামালসহ ধৃত আসামীদেরকে শিবগঞ্জ থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *