Sharing is caring!

ভাঙ্গুরায় নকল দুধ তৈরির দায়ে কারিগরকে কারাদণ্ড

নিউজ ডেস্ক

পাবনার ভাঙ্গুরা উপজেলায় নকল দুধ তৈরির অপরাধে সঞ্জয় ঘোষ (৩৫) নামে এক কারিগরকে এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার (১০ জুলাই) রাত ১০টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ আশরাফুজ্জামান এ দণ্ডাদেশ প্রদান করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত সঞ্জয় ঘোষ পাবনার বেড়া উপজেলার মালদহপাড়া গ্রামের বৃন্দাবন ঘোষের ছেলে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে নকল দুধ তৈরির সরঞ্জামসহ তাকে আটক করে পুলিশ।

ভাঙ্গুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদ রানা জানান, বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তার নেতৃত্বে উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর নুরুল ইসলাম পুলিশের ফোর্সসহ সঞ্জয় ঘোষের কারখানায় অভিযান চালান। অভিযানে সঞ্জয় ঘোষকে আটক করা হয়। এ সময় দুধ তৈরিতে ব্যবহৃত ছয় লিটার নিম্নমানের সয়াবিন তেল, চক পাউডার, সোডা ও দুইটি ব্লেন্ডার মেশিন উদ্ধার করা হয়।

ওসি বলেন, সঞ্জয় দীর্ঘদিন ধরে তার কারখানা থেকে নিম্নমানের সয়াবিন তেল, চক পাউডার, সোডা ও কেমিক্যাল মিশিয়ে দুধ তৈরি করতেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন। পরে এসব দুধ সে বিভিন্ন দুগ্ধ ব্যবস্থাপনা সমিতির কাছে সরবরাহ করতেন বলেও স্বীকার করেছেন সঞ্জয়।

ভাঙ্গুরা থানার ওসি আরও বলেন, নকল দুধ তৈরির সরঞ্জামসহ কারিগরকে আটকের খবর রাতেই ভাঙ্গুরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ আশরাফুজ্জামানকে জানানো হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ আশরাফুজ্জামান রাতেই ভ্রাম্যমাণ আদালত গঠন করে অভিযুক্তকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) সকালে আটক সঞ্জয় ঘোষকে পাবনা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।f

নিউজ ডেস্ক

পাবনার ভাঙ্গুরা উপজেলায় নকল দুধ তৈরির অপরাধে সঞ্জয় ঘোষ (৩৫) নামে এক কারিগরকে এক বছরের কারাদণ্ড প্রদান করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বুধবার (১০ জুলাই) রাত ১০টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ আশরাফুজ্জামান এ দণ্ডাদেশ প্রদান করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত সঞ্জয় ঘোষ পাবনার বেড়া উপজেলার মালদহপাড়া গ্রামের বৃন্দাবন ঘোষের ছেলে। ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে নকল দুধ তৈরির সরঞ্জামসহ তাকে আটক করে পুলিশ।

ভাঙ্গুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদ রানা জানান, বুধবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তার নেতৃত্বে উপজেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর নুরুল ইসলাম পুলিশের ফোর্সসহ সঞ্জয় ঘোষের কারখানায় অভিযান চালান। অভিযানে সঞ্জয় ঘোষকে আটক করা হয়। এ সময় দুধ তৈরিতে ব্যবহৃত ছয় লিটার নিম্নমানের সয়াবিন তেল, চক পাউডার, সোডা ও দুইটি ব্লেন্ডার মেশিন উদ্ধার করা হয়।

ওসি বলেন, সঞ্জয় দীর্ঘদিন ধরে তার কারখানা থেকে নিম্নমানের সয়াবিন তেল, চক পাউডার, সোডা ও কেমিক্যাল মিশিয়ে দুধ তৈরি করতেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন। পরে এসব দুধ সে বিভিন্ন দুগ্ধ ব্যবস্থাপনা সমিতির কাছে সরবরাহ করতেন বলেও স্বীকার করেছেন সঞ্জয়।

ভাঙ্গুরা থানার ওসি আরও বলেন, নকল দুধ তৈরির সরঞ্জামসহ কারিগরকে আটকের খবর রাতেই ভাঙ্গুরা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সৈয়দ আশরাফুজ্জামানকে জানানো হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ আশরাফুজ্জামান রাতেই ভ্রাম্যমাণ আদালত গঠন করে অভিযুক্তকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) সকালে আটক সঞ্জয় ঘোষকে পাবনা জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *