Sharing is caring!

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-ঢাকা রুটে ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ উদ্বোধন

চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসীকে ঈদের উপহার দিলাম

–প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

স্টাফ রিপোর্টার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার বেলা ১২টায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে চাঁপাইনবাবগঞ্জ হতে সরাসরি ঢাকাগামী আন্তঃনগর বিরতিহীন ট্রেন “বনলতা এক্সপ্রেস” উদ্বোধন করেছেন। এছাড়াও একই দিন “বনলতা এক্সপ্রেস” উদ্বোধনের আগে বেনাপোল-ঢাকা বেনাপোল রুটেও আন্তঃনগর “বেনাপোল এক্সপ্রেস” উদ্বোধন করেন তিনি। উদ্বোধনকালে তিনি বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও বেনাপোলবাসীকে ঈদের উপহার হিসেবে ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ ও ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ সার্ভিস দিলাম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গণভবন থেকে সবুজ পতাকা উড়িয়ে ও বাঁশি বাজিয়ে ট্রেন দুটির উদ্বোধন করেন। এতদিন বিরতিহীন আন্তঃনগর ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ ঢাকা-রাজশাহীর মধ্যে চলত, এখন থেকে তা ঢাকা-রাজশাহী-চাঁপাইনবাবগঞ্জ রুটে চলাচল করবে। এসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় আসলেই রেলওয়েসহ যোগাযোগ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন হয়। বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় দেশের অনেক জায়গায় ট্রেন সার্ভিস বন্ধ করে দিয়েছিলো। আমরা ক্ষমতায় এসে সেগুলো আবার চালু করেছি। দেশের উন্নয়নে যোগাযোগ ব্যবস্থা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। যোগাযোগ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন ও সকল মানুষের কাছে নিয়ে যাওয়া, এটা আমাদের একটি লক্ষ্য। আর সেই লক্ষ্য নিয়েই দেশের সড়ক, নৌ ও আকাশপথের পাশাপাশি রেলওয়ে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করছি। খনও অনেক জেলায় রেলযোগাযোগ নেয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, যেসব জেলায় রেল যোগাযোগ নেই, সেইসব স্থানে রেল সংযোগ নিয়ে যেতে আমরা কাজ করছি। দেশের কোনো জেলা ট্রেনের সুবিধা থেকে বঞ্চিত থাকবে না। বাংলাদেশ ঘনবসতিপূর্ণ দেশ। বিপুল সংখ্যক এই জনগোষ্ঠীর যাতায়াতে সুবিধার জন্য রেলের আধুনিকায়নের কোন বিকল্প নেই। বঙ্গবন্ধু যে লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে এই দেশ স্বাধীন করেছিলেন, আমরা সেই লক্ষ্য পূরণ করবো। পদ্মা সেতু নির্মান কাজ শেষ হলে ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনের ঢাকায় আসতে আরও কম সময় লাগবে। এখন ৮ ঘন্টা লাগছে, সেটি হলে ৪-৫ ঘন্টায় রাজধানীতে আসতে পারবেন ওই এলাকার মানুষরা। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা আরো বলেন, ট্রেনের আরো বেশি আধুনিকায়ন কাজ চলছে। নতুন নতুন ট্রেন সংযোজন করা হচ্ছে। লোকবল নিয়োগ দিয়ে তাদেরকে উপযুক্ত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার মাধ্যমে দক্ষ করে গড়ে তোলা হচ্ছে। আমরা ১৬’শ মেগাওয়াট থেকে বিদুৎ উৎপাদনকে ২২ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীত করেছি। আগামীতে আমরা বিদুৎচালিত ট্রেন চালু করবো। এতে সময় কমবে, অর্থনেতিক সম্ভাবনার দ্বার আরো খুলে যাবে। এভাবেই আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা, দারিদ্রমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠা করতে পারবো। ঈদের উপহার হিসেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাবাসীকে এই ট্রেন উপহার দিলাম বলে জানান টানা তৃতীয় মেয়াদে নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ঈদুল ফিতরের আগে আমরা রাজশাহীবাসীকে ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ উপহার দিয়েছিলাম। এবার ঈদুল আযহার আগে আমের মৌসুমে আমের রাজধানী খ্যাত চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসীর জন্যও এই উপহার দিলাম। কিভাবে নিরাপদ ও সুমিষ্ট আম পাওয়া যায়, সেই লক্ষ্যে আমের উন্নয়নে আমরা কাজ করছি। কৃষকদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণসহ সবধরনের সুযোগ সুবিধা দিয়ে আমসম্পদ উন্নয়নে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। এশিয়া ডেভলপমেন্ট ব্যাংককে ধন্যবাদ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানান, এই প্রতিষ্ঠানটি দেশের রেল যোগাযোগের উন্নয়নে সবসময় আমাদের পাশে ছিলো। বিরতিহীন আন্তঃনগর “বনলতা এক্সপ্রেস” ট্রেনের সেবা বর্ধিতকরণের উদ্বোধন উপলক্ষে চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন হতে গণভবনে ভিডিও কনফারেন্স মাধ্যমে উদ্বোধন করা হয়। ভিডিও কনফারেন্সে চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রান্তে সঞ্চালনা করেন, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক এ.কে.এম. তাজকির-উজ-জামান। এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে সরাসরি প্রদানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে কথা বলেন আম ব্যবসায়ী ইসমাইল খান শামীম ও নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের উচ্চ মাধ্যমিক দ্বিতীয় বর্ষেও শিক্ষার্থী মালিশা মালিহা হৃদী। এসময় চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশনে উপস্থিত ছিলেন, রাজশাহী সিটি করপোরেশনের মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব মইনুদ্দিন মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ সদর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ, চাঁপাইনবাব-১ শিবগঞ্জ আসনের এমপি ডা. শামিল উদ্দীন আহমেদ শিমুল, সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি ফেরদৌসী ইসলাম জেসী, পুলিশ সুপার টিএম মোজাহিদুল ইসলাম বিপিএম-পিপিএম, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের জেনারেল ম্যানেজার খন্দকার শহীদুল আলম, নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. শংকর কুমার কুন্ডু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ (গোমস্তাপুর, ভোলাহাট, নাচোল) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য মো. জিয়াউর রহমান, একই আসনের সাবেক এমপি মোস্তফা বিশ্বাস, নবাবগঞ্জ সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ মনোয়ারা খাতুন, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব অ্যাড. আব্দুস সামাদ, জেলা আ.লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব রুহুল আমিন, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন, সদর উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. নজরুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সভাপতি সামিউল হক লিটন, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি শরিফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মিজানুর রহমান, জেলা যুব মহিলালীগের সভাপতি আলহাজ্ব অ্যাড. ইয়াসমিন সুলতানা রুমা, সাধারণ সম্পাদক শান্তনা হক শান্তা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম কাজল, জেলার বিভিন্ন উপজেলার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানগণ, বিভিন্ন দপ্তরপ্রধানগণ, পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তাবৃন্দ, জেলা, উপজেলা ও পৌর আ.লীগের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ। বনলতা উদ্বোধনের পর সদর আসনের সাবেক এমপি ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চাঁপাইনবাবগঞ্জ এসে নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের বিশাল জনসভায় ঘোষণা দিয়েছিলেন জেলা থেকে ঢাকাগামী আন্তৎনগর ট্রেন দেবেন। অবকাঠামোগত উন্নয়নের জন্য দেরিতে হলেও প্রধানমন্ত্রী তার দেয়া কথা রেখেছেন। আজ তিনি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে স্বপ্নের আন্তঃনগর ট্রেনের উদ্বোধন করলেন। আমি চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসী ও জেলা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। সে সাথে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষকে যারা এর পেছনে থেকে কাজ করেছেন। শেষে দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনায় দোয়া করা হয়। উল্লেখ্য, আজ বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা ৪৫ মিনিটে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে দুটি শোভন ও একটি এসি বগি প্রথম যাত্রা শুরু করবে দেশের প্রথম বিরতিহীন ট্রেন “বনলতা এক্সপ্রেস”। এ উপলক্ষে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে ট্রেনের টিকিট বিক্রি। প্রতি এসি টিকিট ৮১০ টাকা, নন এসি শোভন ৪২৫ টাকা। ঢাকা থেকে চাঁপাইবাবগঞ্জের উদ্দেশ্যে ‘বনলতা এক্সপ্রেস’ ছাড়বে ১টা ১৫মিনিটে। শুক্রবার ছুটির দিন ছাড়া প্রতিদিনই একইভাবে সিডিউল মোতাবেক চলবে ‘বনলতা এক্সপ্রেস’। চাঁপাইনবাবগঞ্জের জন্য বরাদ্দ হওয়া ২’শ ৭৬টি টিকিটের মধ্যে ৯২টি চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেল স্টেশনে সরাসরি পাওয়া যাবে এবং বাকি টিকিট অনলাইনে কাটতে পারবে যাত্রীরা। প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের পর অনেকদিনের ¯^প্ন পূরণ হওয়ায় খুশি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাবাসী।

আপনার মতামত লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *